জামুকার সিদ্ধান্ত মানুষ মেনে নেবে না : ফখরুল

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৩১ এএম, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১
ফাইল ছবি

জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা) জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিলের যে সুপারিশ করেছেন তার সমালোচনা করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘এই সিদ্ধান্ত দেশের মানুষ গ্রহণ করবে না।’

সিঙ্গাপুর থেকে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরে বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের টার্মিনালে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, ‘আমি আগে বলেছি, জামুকার (জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল) সিদ্ধান্ত কখনোই দেশের মানুষ মেনে নেবে না। দেশের মানুষের কাছে এটি গ্রহণযোগ্য হবে না। কেউ চাইলেও জিয়াউর রহমানের অবদানকে খাটো করে দেখাতে পারবে না। এ খেতাব তো তিনি অর্জন করেছেন। এটি কারো দয়ায় পাওয়া নয়। যুদ্ধ করে তিনি এটি অর্জন করেছেন। আমরা মনে করি- জিয়াউর রহমানের কোনো ক্ষতি তারা করতে পারবে না।’

সিঙ্গাপুরে টিকা নিয়েছেন কি-না জানতে চাইলে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘সেখানে বিদেশিদের টিকা নেয়ার কোনো সুযোগ নেই। এখানকার অবস্থা আগে দেখি। নিবন্ধন করে নেয়ার চেষ্টা করবো। আমি অসুস্থ, এখনো সুস্থ হইনি। সিঙ্গাপুরে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থেকে তারপর ডাক্তারদের সঙ্গে দেখা করে সব পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ফিরছি।’

সদ্য প্রয়াত সাংবাদিক সৈয়দ আবুল মকসুদ ও বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সৈয়দ আবুল মকসুদ আমার ব্যক্তিগত বন্ধু ছিলেন। তার মৃত্যুর খবরে আমি মর্মাহত। খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদকে বলা যেতে পারে যে, অ্যা ম্যান অব ইন্টেগ্রিটি, ম্যান অব অনেস্টি অ্যান্ড ডিগনিটি। ব্যাংকিং সেক্টরে তিনি ছিলেন একজন দিকপাল। জাতি অত্যন্ত যোগ্য দুই জন মানুষকে হারাল।’

গত ৩০ জানুয়ারি স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে যান বিএনপি মহাসচিব। সেখানকার ফারার পার্ক হাসপাতালে তিনি চিকিৎসা নেন।

কেএইচ/এআরএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]