দেশ ও জনগণের শান্তি কামনায় দোয়া


প্রকাশিত: ১০:০০ এএম, ০৪ নভেম্বর ২০১৫

পবিত্র মক্কা নগরী যখন জনবসতিপূর্ণ হয়ে গেল। আল্লাহ তাআলা বালুকাময় ভূমি মক্কাকে ফুলে-ফলে পরিপূর্ণ করে দিলেন। অধিক সুখ-শান্তির কারণে মানুষ আল্লাহকে ভুলে যেতে শুরু করল। জোরহাম গোত্রের লোকেরা মূর্তিপূজা আরম্ভ করে দিল তখন ইবরাহিম আলাইহিস সালাম তাদের বুঝালেন যে, আল্লাহ তাআলার বিভিন্ন নিআমাত- চন্দ্র-সূর্য, পানি-সমুদ্র, গাছ, মিষ্টি ফল সবই আল্লাহর দান। সুতরাং তাঁর ইবাদত করা, শুকরিয়া আদায় করা জরুরি। কিন্তু লোকেরা যখন এতে কর্ণপাত করল না, তখন ইবরাহিম আলাইহিস সালাম উক্ত দোয়া করলেন। তাঁর দোয়া কবুল হওয়ার ফলে পবিত্র মক্কা নগরী থেকে শিরক ও অশান্তি দূর হয়ে গেল। এবং মক্কা নগরী আল্লাহর নিআমাতে পরিপূর্ণ হয়ে শান্তির নগরীতে পরিণত হল। হজরত ইবরাহিম আলাইহিস সালামের শিখানো দোয়ার মাধ্যমে দেশের শান্তির জন্য দোয়া করাও আমাদের কর্তব্য। এখানে তা তুলে ধরা হলো-

رَبِّ اجْعَلْ هَـذَا الْبَلَدَ آمِنًا وَاجْنُبْنِي وَبَنِيَّ أَن نَّعْبُدَ الأَصْنَامَ
উচ্চারণ: রাব্বিঝআ’ল হাজা বালাদা আ-মিনাওঁ ওয়াঝনুবনি ওয়া বানিইয়্যা আন না’বুদাল আচনাম।
অর্থ : ‘হে প্রভু! এই শহরকে শান্তিময় করে দাও। এবং আমাকে ও আমার সন্তানদিকে মূর্তিপূজা থেকে দূরে রাখ।’ (সুরা ইবরাহিম : আয়াত ৩৫)

উপরোক্ত আয়াত থেকে বুঝা গেল যে, আমরা যে নগরীতে বসবাস করি সে নগরীর জন্য দোয়া করা এবং শিরকের গোনাহ মুক্তির দোয়া করা প্রত্যেক মুসলিম উম্মাহর জন্য জরুরি।
সুতরাং দেশের কল্যাণ কামনা করা এবং শিরকের গোনাহ থেকে মুক্ত থাকতে সব সময় আল্লাহর কাছে প্রার্থণা করতে হবে। আল্লাহ আমাদের কবুল করুন। আমিন।

জাগো ইসলামে লেখা পাঠাতে ই-মেইল : [email protected]

জাগোনিউজ২৪.কমের সঙ্গে থাকুন। কুরআন-হাদিস মোতাবেক আমলি জিন্দেগি যাপন করে আল্লাহর নৈকট্য অর্জন করুন। আমিন, ছুম্মা আমিন।

এমএমএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]