বোলিংয়ে ডাবল সেঞ্চুরি তাইজুলের!

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:২২ পিএম, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

না, তিনি ২০০তম উইকেট শিকারির গৌরবোজ্জল তালিকায় নাম লেখাননি। সুতরাং, মাত্র ১৭তম টেস্ট খেলা বাংলাদেশি স্পিনার তাইজুল ইসলামের এই ডাবল সেঞ্চুরিটা অন্যরকম। বরং, কিছুটা লজ্জারও। চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে বোলিং করতে নেমে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট শিকার করেছেন তাইজুলই। তবুও, লজ্জার এবং ক্লান্তিকর একটি রেকর্ডের মালিক হয়ে গেলেন তিনি!

লঙ্কান ব্যাটসম্যানদের সামনে টানা দুইদিনের বেশি বল করে গেলেন। ওভারের পর ওভার বল করতে করতে ক্লান্তিও ভর করার কথা; কিন্তু লঙ্কান ব্যাটসম্যানরা যেভাবে উইকেটে জমে গিয়েছিলেন, তাতে তাইজুলদের ধৈয্যের পরীক্ষা দেয়া ছাড়া আর উপায়ই তো ছিল না। এ কারণে টানা বল করে যাও আর বল কুড়াও এটাই ছিল যেন নিয়তি।

এভাবে বাংলাদেশের হয়ে টেস্টে এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি বোলিং করার রেকর্ড গড়ে ফেললেন তাইজুল ইসলাম। সব মিলিয়ে তিনি বোলিং করেছেন ৬৭.৩ ওভার। যা বাংলাদেশের বোলারদের হয়ে এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি ওভার বোলিং করার রেকর্ড। এই রেকর্ডটির মালিক ছিলেন সাকিব আল হাসান। এর আগে ২০১০ সালে মিরপুরে এক ইনিংসে ৬৬ ওভার বোলিং করেছিলেন সাকিব। যদিও টেস্টে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ৯৮ ওভার বোলিং করার রেকর্ড রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ স্পিনার সনি রামাধিনের।

তবে ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন তিনি রান দেয়ার ক্ষেত্রে। ৬৭.৩ ওভার বল করে তাইজুল ৪ উইকেট নিলেও রান দিয়েছেন ২১৯টি। বাংলাদেশি বোলারদের মধ্যে যা রীতিমত রেকর্ড। শুধু তাই নয়, এক ইনিংসে ২০০’র বেশি রান দেয়া প্রথম বোলার। ২০০৭ সালে শেরেবাংলায় ভারতের বিপক্ষে ৪৫ ওভার বোলিং করে সর্বোচ্চ ১৮১ রান দিয়েছিলেন স্পিনার মোহাম্মদ রফিক।

এবার রফিককে সেই লজ্জার রেকর্ড থেকে মুক্তি দিলেন তাইজুল। সবচেয়ে বেশি ওভার করার পাশাপাশি সবচেয়ে বেশি রান দেয়ার কৃতিত্বটাও (!) নিজের করে নিলেন বাংলাদেশের বাঁ-হাতি এই স্লো অর্থোডক্স।

আইএইচএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :