অবিশ্বাস্য! ২০ ওভারে ৩১৪ রান

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৩০ এএম, ২১ জুন ২০১৯

কিউবুকা ক্রিকেট টুর্নামেন্ট সাক্ষী হলো অবিশ্বাস্য এক ম্যাচের। যেখানে এক ইনিংসেই হয়েছে ৩১৪ রান। তাও আবার টি-টোয়েন্টি ম্যাচে। এমন বিশ্বরেকর্ডই গড়েছে উগান্ডা নারী ক্রিকেট দল। মালি নারী ক্রিকেট দলের বিপক্ষে এতো বড় সংগ্রহ করে তারা। তার জবাব দিতে নেমেই মাত্র ১০ রানেই অলআউট হয় মালি। ফলে ৩০৪ রানের রেকর্ড জয় পায় উগান্ডা নারী দল।

আইসিসি সকল সহযোগী সদস্য দেশগুলোকে টি-টোয়েন্টি স্ট্যাটাস দিয়ে দেয়ার ফলে, এই টুর্নামেন্টের ম্যাচগুলোকে আন্তর্জাতিক ম্যাচ হিসেবে স্বীকৃত দেয়া হয়েছে। যার ফলে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ সংগ্রহ এবং সবচেয়ে বড় জয়ের রেকর্ডটি এখন উগান্ডার দখলে।

রুয়ান্ডার কিগাওয়ালি সিটিতে মালির বিপক্ষে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় উগান্ডা। ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই মালি বোলারদের উপর চড়াও হতে থাকেন উগান্ডার দুই প্রসকোভিয়া আলাকো এবং ইমাকুলেত নাকিসুয়ো।

ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ছয় ওভার পার হওয়ার আগেই দলীয় স্কোর ৮০ রান তুলে ফেলেন। দলীয় ৮২ রানে নাকিসুয়ো ৩৪ রান করে আউট হলেও দলীয় অধিনায়ক রিতা মুসামালীকে সঙ্গে নিয়ে আবারো জুটি গড়েবন আলাকো।

এই দুই ব্যাটসম্যান মিলে রীতিমতো তুলোধুনো করতে শুরু করেন মালি বোলারদের। পুরো ইনিংস জুড়ে একের পর এক বাউন্ডারি মারতে থাকেন। সেই সুবাদে নিজেদের ব্যক্তিগত সেঞ্চুরিও তুলে ফেলেন তারা। একসময় মনে হচ্ছিল অপরাজিত থেকে ইনিংস শেষ করবেন এই দুজন।

কিন্তু ২০তম ওভারের পঞ্চম ডেলিভারিতে ৭১ বলে ১৫ চারে ১১৬ রান করে রান আউট হন ওপেনার আলাকো। যার ফলে ভেঙে যায় তাদের করা ২২৭ রানের বিশ্ব রেকর্ড জুটি।

তবে আলাকো আউট হলেও ৬১ বলে ১৫ চারে ১০৩ রান করে অপরাজিত থেকে ইনিংস শেষ করেন অধিনায়ক মুসামালি। যার ফলে ২০ ওভারে দুই উইকেট হারিয়ে ৩১৪ রানের পাহাড় সমান সংগ্রহ দাড় করায় উগান্ডা।

তবে এতো বেশি রান হওয়ার আরেকটি কারণও আছে। যার পেছনে মালির বোলাররা। পুরো ইনিংসে ৬১ রানই অতিরিক্ত দেন তারা। এছাড়াও ওমৌ সোউ ৩ ওভারেই দিয়েছেন ৮২ রান। যা টিটুয়েন্টি ইতিহাসে সবচেয়ে খরুচে বোলিং ফিগার।

৩১৫ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে তাসের পাতার মতো একে একে ভেঙে পড়ে মালির ব্যাটসম্যানরা। ১১.১ ওভার খেলে মাত্র ১০ রানই তুলতে পারে তারা।

এর মধ্যে রানের খাতা খুলতে পেরেছেন মাত্র চারজন ব্যাটসম্যান। সর্বোচ্চ ৪ রান আসে তেনিন কোনাতের ব্যাট থেকে। এছাড়া ১ রান করে করেন মরিয়ম সামাক, ওমৌ সোউ ও মালা দিজিগুইবা। বাকি সাত ব্যাটসম্যানের সবাই ডাক মেরেছেন।

উগান্ডার পক্ষে সবচেয়ে বেশি তিনটি উইকেট নেন মিলদ্রেদ আনয়িগো। দুটি উইকেট নেন সুসান কাকাই। একটি করে উইকেট নেন ক্রিস্টিন আনায়ো, স্টেফানিয়ে নাম্পিনা, জয়সে আপিয়ো।

এই ম্যাচের যত রেকর্ড

-> মালির বিপক্ষে দুই উইকেটে উগান্ডার করা ৩১৪ রানটি নারী টি-টোয়েন্টি ইতিহাসের সর্বোচ্চ সংগ্রহ। এর আগের রেকর্ডটি ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার নারীদের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের করা তিন উইকেটে ২৫০ রান।

-> মুসামালি ও আলাকোর করা ২২৭ রানের জুটিটি এখন টি টুয়েন্টি ইতিহাসে যেকোন উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটি। এর আগের রেকর্ডটি ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে করা সুজি বেটস এবং সোফি ডিভাইনের ১৮২ রানের জুটিটি।

-> উগান্ডার পাওয়া ৩০৪ রানের জয়টি নারী টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে সবচেয়ে বড় জয়। এর আগের রেকর্ডটি ছিল চায়নার বিপক্ষে সংযুক্ত আরব আমিরাতের পাওয়া ১৮৯ রানের জয়টি।

-> মালির দেয়া অতিরিক্ত ৬১ রানটি এখন নারী টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে এক ম্যাচে দেয়া অতিরিক্ত রানের তালিকায় তৃতীয় স্থানে আছে।

-> মালি বোলার ওমৌ সৌউয়ের বোলিং ফিগারটি টি-টোয়েন্টি ইতিহাসের সবচেয়ে খরুচে বোলিং ফিগার। এর আগের রেকর্ডটি ছিল পুরুষ ঘরোয়া ক্রিকেটে পাকিস্তানের বোলার সারমাফ আনোয়ারের দেয়া ৪ ওভারে ৮১ রানের ফিগারটি।

এএইচএস/এসএএস

আপনার মতামত লিখুন :