ভারতীয় স্পিনারদের ভয় না পেয়ে উল্টো হুঁশিয়ারি দিয়ে রাখলেন যোশী

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:০০ এএম, ২৫ জুন ২০১৯

বিশ্বকাপের শুরু থেকেই ব্যাটিংটা দারুণ হলেও বোলিংয়ে নিজেদের হারিয়ে খুঁজছিলেন বাংলাদেশের বোলাররা। পেস-স্পিন কোনো বিভাগই আশানুরূপ পারফরম্যান্স উপহার দিতে পারছিল না। কিন্তু গতকাল স্লো পিচ (অনেকটা উপমহাদেশের মতো) পেয়েই জ্বলে উঠেছিল টাইগার বোলাররা। বিশেষ করে সাকিব-মিরাজ-মোসাদ্দেকে যেন জিন্মি হয়ে পড়ে আফগানিস্তানের ব্যাটসম্যানরা।

টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত ৭টি ম্যাচ খেলে (১ ম্যাচ পরিত্যক্ত) বাংলাদেশ গতকাল আফগানিস্তানের বিপক্ষেই প্রথমবার ১০ উইকেট তুলে নেয় (১টি রানআউট ছিল)। দারুণ বোলিং করেছে পেস-স্পিন দুই বিভাগই। তবে এর মধ্যে সেরা ছিলেন স্পিনাররা। বিশেষ করে সাকিব আল হাসান ব্যাট হাতে ৫১ করার পর স্পিন ঘূর্ণিতে নেন ৫ উইকেট। তাকে যোগ্য সঙ্গ দিয়েছেন মোসাদ্দেক-মিরাজও।

স্পিনারদের এরকম পারফরম্যান্সে যারপরনাই খুশি টাইগারদের বোলিং কোচ সুনীল যোশী। গতকাল ম্যাচ শেষে বোলারদের নিয়ে স্তুতি ঝরল সাবেক এই ভারতীয় স্পিনারের মুখে, 'একজন স্পিন কোচ হিসেবে আমি এর চেয়ে বেশি চাইতে পারি না। সন্দেহাতীতভাবে সাকিব একজন কিংবদন্তি। এটা অনেক বড় গর্বের বিষয় যে, বাংলাদেশে সাকিবের মতো একজন খেলোয়াড় আছে। ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং, তিন বিভাগেই সে ধারাবাহিক।'

সাকিবের প্রশংসা করতে গিয়ে যোশী আরও বলেন, 'সাকিব তার ফিটনেসের উপর বেশ নজর রাখে। সম্প্রতি ৫-৭ কেজি ওজন কমিয়েছে। তার রানিং বিটুইন দ্য উইকেট দেখলেই বোঝা যায় সব। ক্রিকেটের প্রতি তার ক্ষুধার মাত্রা বেড়ে গেছে। তার উপস্থিতি আমাদের সামনে এগিয়ে যেতে সাহায্য করছে।'

আফগানিস্তানকে হারানোর পর বেশ বড় এক ছুটি পাচ্ছে বাংলাদেশ। আগামী ২ তারিখের আগে কোনো ম্যাচ নেই মাশরাফির দলের। ২ তারিখ এডজবাস্টনে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ভারত। এবারের বিশ্বকাপের অন্যতম শক্তিশালী দল ভারতীয়রা। বিরাট কোহলির নেতৃত্বে তারা যেন অপরাজেয় হয়ে উঠেছে। সবচেয়ে বড় কথা তাদের এমন দুই রিস্ট স্পিনার (কুলদীপ যাদব ও ইয়ুজবেন্দ্র চাহাল) আছে যাদের বিপক্ষে ভুগতে পারে সাকিব-মুশফিকরা।

তবে যাদব-চাহালদের মোকাবিলা করতে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের খুব একটা কষ্ট হওয়ার কথা না বলে মনে করেন ভারতের হয়ে ৬৯টি ওয়ানডে খেলা যোশী। তিনি বলেন, 'আমরা সবাই জানি তারা ভালো স্পিন করে। কিন্তু আমরা আফগানিস্তানের বিপক্ষেও দারুণ স্পিন বোলিং সফলতার সঙ্গে সামলেছি। সবচেয়ে বড় কথা সাদা বলের ক্রিকেটে আমরা আমাদের যোগ্যতার প্রমাণ ইতোমধ্যেই দিয়েছি। বিশ্বকাপ শুরুর আগে আমরা দেখিয়েছে আমরা কত ভালো দল। আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ জিতেছি, ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ঘরের মাঠে এবং তাদের মাঠেও হারিয়েছি। এ ছাড়াও শেষ ৩ বছরে ভারতকে আমরা বেশ কয়েকবার হারানোর কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছিলাম।'

ভারতের স্পিনারদের তুলনায় সাকিব-মিরাজও কম যায় না তাও এসম বলেন যোশী, 'ভারতের মতো আমাদেরও মানসম্পন্ন স্পিনার রয়েছে। তাদের আপনি কীভাবে মোকাবিলা করবেন? তারা যেমন দারুণ বোলিং করবে, আবার সেরকম দারুণ বল মোকাবিলাও করবে। প্রত্যেকটি দলেরই শক্তি এবং দুর্বলতার জায়গা আছে। আমি ভারত দলকে তো খুব কাছ থেকেই দেখেছি। আমি জানি তাদের বিপক্ষে কোথায় বল করতে হবে।'

এসএস/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :