‘মাতৃভূমি’ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলতে মুখিয়ে রয়েছেন সাইফ

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:০৫ পিএম, ২৭ আগস্ট ২০২০

ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া কিংবা দক্ষিণ আফ্রিকায় এমন উদাহরণ আছে ভুরি ভুরি। জোফরা আর্চারকে দেখুন। ক্যারিবীয় বংশোদ্ভূত এই পেসার এখন ইংল্যান্ড জাতীয় দলে। কদিন আগেই মাতৃভূমির বিপক্ষে খেলতে হয়েছে তাকে।

কিন্তু বাংলাদেশে এমন ঘটনা সচরাচর ঘটে না। যেমনটা ঘটতে যাচ্ছে সাইফ হাসানের বেলায়। সামনে শ্রীলঙ্কার মাটিতে টেস্ট সিরিজ, যে দেশটি কি না বাংলাদেশি ওপেনারের মাতৃভূমি! হ্যাঁ, অনেকেই হয়তো জানেন না, সাইফের মা একজন শ্রীলঙ্কান।

দারুণ প্রতিভাবান সাইফের বাংলাদেশের হয়ে টেস্ট অভিষেক হয়েছে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে। পাকিস্তান এবং জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অবশ্য দুটো টেস্টে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। সর্বোচ্চ ইনিংসটি ১৬ রানের।

তবে ২১ বছর বয়সী এই ওপেনার বাংলাদেশ দলের ভবিষ্যত পরিকল্পনায় আছেন। সম্ভবত শ্রীলঙ্কা সফরেও টেস্ট একাদশে জায়গা করে নেবেন। আর সেটি হলে মায়ের দেশের বিপক্ষে খেলতে হবে সাইফকে।

সাইফের বাবা প্রবাসী হিসেবে কাজ করতে গিয়েছিলেন সৌদি আরবে। সেখানেই তার পরিচয় হয় শ্রীলঙ্কান এক খ্রিষ্টান কন্যার সঙ্গে। পরিচয় থেকে পরিণয়। জীবনসঙ্গীনি হিসেবে লঙ্কান ওই কন্যাকেই বেছে নেন সাইফের বাবা।

সেই হিসেবে সাইফের প্রকৃত ‘মাতৃভূমি’ শ্রীলঙ্কা। এর আগে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে খেলতে গিয়ে সেখানে মায়ের দিকের কয়েকজন আত্মীয়ের সঙ্গে দেখাও হয়েছিল টাইগার ওপেনারের।

একটি ইংরেজি দৈনিককে দেয়া সাক্ষাৎকারে সাইফ বলেন, ‘আমার মায়ের বাড়ির কয়েকজন আত্মীয় কলম্বো থেকে কিছুটা দূরে থাকেন। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে খেলতে গিয়ে আমি তাদের কয়েকজনের সঙ্গে দেখা করেছিলাম। তারা আমাকে দেখে খুব খুশি হন।’

শ্রীলঙ্কায় খেলতেও পছন্দ করেন সাইফ। তবে সেই দেশের রান্না ভালো না তার। টাইগার ক্রিকেটারের ভাষায়, ‘শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট খেলার জন্য দারুণ জায়গা। যদিও কিছুটা গরম। তবে উইকেট ভালো, বেশিরভাগই ব্যাটিং সহায়ক। আমি শ্রীলঙ্কায় গেলে সেখানে খেলতে পছন্দ করি। তবে তাদের খাবার আমার তেমন স্বাদ লাগে না।’

এমএমআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]