নিউজিল্যান্ড থেকে অবসর নিয়ে নাম লেখালেন যুক্তরাষ্ট্র ক্রিকেটে

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:২৯ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০

অবশেষে গুঞ্জনই সত্য হলো। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল থেকে অবসর নিয়েছেন বাঁহাতি পেস বোলিং অলরাউন্ডার কোরি অ্যান্ডারসন। তবে এখনই ক্রিকেট ছেড়ে দিচ্ছেন না ২৯ বছর বয়সী এ তারকা অলরাউন্ডার। তিন বছরের জন্য চুক্তি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন মেজর লিগ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে।

এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজকে অ্যান্ডারসন জানিয়েছেন, ‘নিউজিল্যান্ড দলের প্রতিনিধিত্ব করতে পারা আমার জন্য অনেক বড় সম্মান ও গর্বের জায়গা ছিল। নিউজিল্যান্ডের আরও অনেকদিন খেলতে ভালবাসতাম আমি।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘কিন্তু কখনও কখনও পরিস্থিতি এমন হয়ে যায় এবং নতুন নতুন সম্ভাবনার দরজা খুলে যায়। যা আপনাকে এমন দিকে পাঠিয়ে দেয় যেটা আপনি কখনও কল্পনাও করেননি। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট আমার জন্য যা করেছে, আমি কৃতজ্ঞ।’

২০১৪ সালের ১ জানুয়ারি মাত্র ৩৬ বলে ওয়ানডে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে তৎকালীন বিশ্বরেকর্ড গড়েছিলেন অ্যান্ডারসন, ভেঙেছিলেন শহীদ আফ্রিদির ১৯৯৬ সালে করা ৩৭ বলে সেঞ্চুরির রেকর্ড। বর্তমানে এই রেকর্ডটি অবশ্য এবি ডি ভিলিয়ার্সের দখলে। তিনি ২০১৫ সালের ১৮ জানুয়ারি ওয়ানডেতে সেঞ্চুরি করেছিলেন মাত্র ৩১ বল খেলে।

বছর ছয়েক আগে করা ৩৬ বলে সেঞ্চুরি দিয়েই মূলত বিশ্ববাসীর কাছে নিজেন নাম পরিচিত করান অ্যান্ডারসন। এরপর সাড়ে ৭ লাখ ডলারের চুক্তিতে তাকে দলে নেয় মুম্বাই ইন্ডিয়ানস। যেখানে ৪৪ বলে ৯৫ রানের এক ম্যাচজয়ী ইনিংস খেলে সকলের বাহবা কুড়ান এ বাঁহাতি পেস বোলিং অলরাউন্ডার।

নিউজিল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে ৯৩টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ (১৩ টেস্ট, ৪৯ ওয়ানডে, ৩১ টি-টোয়েন্টি) খেলা অ্যান্ডারসন ছিলেন ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে রানার্সআপ হওয়া দলেও। কিন্তু এরপরই বারবার পড়তে থাকেন ইনজুরিতে। ফলে আর কখনও জাতীয় দলে নিয়মিত হতে পারেননি অ্যান্ডারসন।

সবশেষ ২০১৮ সালের নভেম্বরে নিউজিল্যান্ডের জার্সি গায়ে খেলেছেন অ্যান্ডারসন। পাকিস্তানের বিপক্ষে দুবাইয়ে খেলা টি-টোয়েন্টি ম্যাচটিই তার নিউজিল্যান্ড ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ হয়ে রইল। কিউইদের হয়ে ১৩ টেস্টে ৬৮৩ রান ও ১৬ উইকেট, ৪৯ ওয়ানডেতে ১১০৯ রান ও ৬০ এবং ৩১ টি-টোয়েন্টিতে তার ঝুলিতে রয়েছে ৪৮৫ রান ও ১৪টি উইকেট।

এখন নিউজিল্যান্ড দল থেকে অবসর নিয়ে আগামী তিন বছর যুক্তরাষ্ট্রেই ক্রিকেট খেলবেন ২৯ বছর বয়সী এ অলরাউন্ডার। এ সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে আমেরিকায় জন্ম ও বড় হওয়া বাগদত্তা ম্যারি মারগারেটও বড় ভূমিকা রেখেছেন বলে জানিয়েছেন অ্যান্ডারসন। ক্রিকেটের পাশাপাশি দুজনের ব্যক্তিজীবনের কথা চিন্তা করেও এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অ্যান্ডারসন।

মেজর ক্রিকেট লিগে নাম লেখানো সবচেয়ে বড় আন্তর্জাতিক তারকা এখনও পর্যন্ত অ্যান্ডারসনই। এছাড়া পাকিস্তানের সামি আসলাম ও দক্ষিণ আফ্রিকার ড্যান পিয়েটরাও চুক্তি করেছেন এই টুর্নামেন্ট। যুক্তরাষ্ট্রে তিন বছর ঘরোয়া লিগ খেলে জাতীয়তা পাওয়ার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় দলে খেলাই মূলত লক্ষ্য এসব ক্রিকেটারদের।

এসএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]