এই দলটা টেস্ট খেলার যোগ্যতা রাখে? প্রশ্নের জবাবে যা বললেন মুমিনুল

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:৫০ পিএম, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১

২১ বছর পার হয়ে ২২-এ পা দিয়েও এখনো টেস্টে আগের মতই দুর্বল, কমজোরি বাংলাদেশ। অতীতে বহুবার বাংলাদেশের টেস্ট খেলার সামর্থ্য নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। ‘আচ্ছা বাংলাদেশের কী সত্যিই টেস্ট খেলার সামর্থ্য আছে?’

সমালোচকরা মাঝে মধ্যেই এমন তীর্য্যক প্রশ্ন তুলে দিচ্ছেন। বাংলাদেশের টেস্ট পারফরমেন্স খারাপ হবার কারণে নানা ব্যাঙ্গ-বিদ্রুপও করে থাকেন কেউ কেউ। সে সব প্রশ্ন ও সমালোচনাকে খুব বেশি নেতিবাচক বলে ভাবারও তেমন কারণ নেই।

এই টেস্টের কথাই ধরা যাক। ৫ দিনের ম্যাচ অর্ধেকের কম সময়ে হেরেছে মুমিনুলের দল। তাও ইনিংস ব্যবধানে। যে ম্যাচে ৩০০ রানের মাঝারি স্কোর নিয়েও ইনিংস ব্যবধানে জিতেছে সফরকারী পাকিস্তান। চতুর্থ দিন শেষ বিকেলে মাত্র ২০ ওভারে খোয়া গেছে ৭ উইকেট। আর আজ শেষ দিনে পতন ঘটেছে ১৩ উইকেটের।

এর চেয়ে খারাপ পারফরম্যান্স আর কী হতে পারে? পাকিস্তানি বোলারদের সামনে বাংলাদেশের ব্যাটারদের ব্যাটিং দেখে মনে হয়েছে, সত্যিই সম্ভবত এরা টেস্ট কিভাবে খেলতে হয় জানেনা। টেস্ট খেলার ধরণ-ধারণ কোনোভাবেই শিখতে পারেনি বাংলাদেশের ব্যাটাররা।

এমন করুন পরিণতির পর বাংলাদেশের টেস্ট সামর্থ্য নিয়ে প্রশ্ন উঠতেই পারে। আজ বুধবার পড়ন্ত বিকেলে খেলা শেষে বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হকের কাছেও ছুঁড়ে দেয়া হয়েছিল প্রশ্ন, ‘আপনার দল কী টেস্ট খেলতে পারে? আপনি যে দলটাকে লিড দিচ্ছেন তারা আসলে টেস্ট খেলতে জানে?’

প্রশ্নকর্তাকে পাল্টা প্রশ্ন মুমিনুলের, ‘আপনার কাছে কী মনে হয়? (হাসি) আমার তো মনে হয়, জানে। টেস্ট খেলার যোগ্যতা আছে আমাদের।’

ওপেনার থেকে তাইজুল-এবাদত পর্যন্ত সবার অতীত ইতিহাস তুলে ধরে বাংলাদেশ অধিনায়ক বলেন, ‘ওপেনার বা এক নম্বর থেকে যারা ব্যাটিং করেছে এবং বোলিং করেছে, তাদের দেখেন। সাদমান এ সিরিজের আগের সিরিজেও সেঞ্চুরি করেছে। জিম্বাবুয়ের মাটিতে রান করা এতো সহজ না। সেখানে সাদমান শতক হাঁকিয়েছে। তার আগে শ্রীলঙ্কাতে শান্ত সেঞ্চুরি করলো। মুশফিক ভাই তো সবসময় ভাল পারফরমার। উনি সিনিয়র খেলোয়াড়। সাকিব ভাইয়ের কথা বলা লাগে না। হয়তো আমার কথা বলতে পারেন। আমি চার ইনিংসে রান করিনি। আমারটা নিয়ে হয়তো প্রশ্ন তুলতে পারেন।’

Mahmudul Hasan Joy

‘বোলিংয়ে যদি বলে তাইজুল, এবাদত, মিরাজরা কিন্তু খুবই ভালো বল করেছে। খালেদ অনেক দিন পরে খেললো, তাও আপনার প্রথমদিন হয়তো প্রথম স্পেলে ভালো করতে পারেনি; কিন্তু দ্বিতীয় স্পেলে খুবই ভালো বল করেছে। তারপর মিরাজ আছে। আপনি যদি দেখেন সবাই ক্যাপাবল। আমি আপনার সাথে একমত না যে টেস্ট খেলার যোগ্য না। অবশ্যই তাদের টেস্ট খেলার যোগ্যতা আছে দেখেই টেস্ট খেলে।’

‘আপনি যদি দেখেন সাকিব ভাই কিন্তু অনেকদিন পরে টেস্ট খেলেছে। লিটন যখন চট্টগ্রামে সেঞ্চুরি মেরেছে তখন কিন্তু আপনারা এই প্রশ্নটা জিজ্ঞেস করেননি, লিটন কেন ৬ নম্বরে এসে সেঞ্চুরি হাঁকালো।’

মিডিয়ার কাছে মুমিনুলের আবেদন, ‘আমাদের পজিটিভভাবে সাপোর্ট করেন। দেখেন আগের ম্যাচে কিন্তু সে (লিটন) সেঞ্চুরি করলো, আজকেও দেখেন ৪৫ করলো।’

এআরবি/আইএইচএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]