লাল কার্ডের পর দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ বার্সা কোচ

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৪৬ এএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

একের পর এক নেতিবাচক খবরের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনা। মাঠের পারফরম্যান্সের বেহাল অবস্থার সঙ্গে যোগ হয়েছিলো দলের কোচ রোনাল্ড কোম্যানের ছাঁটাইয়ের গুঞ্জন। সেটি আপাতত থামলেও, এবার নতুন করে যোগ হলো কোচের নিষেধাজ্ঞা।

আগামী দুই ম্যাচ দলের সঙ্গে ডাগআউটে থাকতে পারবেন না কোম্যান। বৃহস্পতিবার রাতে তুলনামূলক দুর্বল দল কাদিজের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করার ম্যাচে একদম শেষদিকে লাল কার্ড দেখেছিলেন কোম্যান। সেই ঘটনার শাস্তি হিসেবেই দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ করা হয়েছে তাকে।

মূলত নিষেধাজ্ঞাটি বাড়তি এক ম্যাচের। কেননা লাল কার্ড দেখায় এমনিতেই এক ম্যাচ বাইরে থাকতে হতো কোম্যানকে। এর সঙ্গে স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন যোগ করেছে আরও এক ম্যাচ। চতুর্থ রেফারির সঙ্গে আক্রমণাত্মক ব্যবহারের কারণে দেয়া হলো এই শাস্তি।

কাদিজের বিপক্ষে ম্যাচটির ৬৫ মিনিটের সময় মাঝমাঠে কাদিজের খেলোয়াড়কে ফাউল করায় দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখানো হয় ডি ইয়ংকে। কিন্তু টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, প্রতিপক্ষের পায়ে লাগার আগে বলেই লাথি মেরেছিলেন ডাচ মিডফিল্ডার।

তবু লাল কার্ড দেখান রেফারি। ফলে এক ম্যাচ খেলতে পারবেন না ডি ইয়ং। পরে ম্যাচের শেষ দিকে অনেকটা অযথাই হলুদ কার্ড দেখানো হয় বার্সেলোনার আরেক মিডফিল্ডার সার্জিও বুসকেটসকে। সেই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করায় আবার লাল কার্ড দেখেন দলের কোচ কোম্যান।

ম্যাচ শেষে এসব বিষয়ে নিয়ে ক্ষোভপ্রকাশ করে কোম্যান বলেছেন, ‘তারা আমাকে নার্ভাসনেসের কারণে লাল কার্ড দেখায়নি। তারা আমাকে বের করেছে কারণ আমি রেফারিকে বলছিলাম যে মাঠে দুইটা বল চলে এসেছে, খেলা বন্ধ করা উচিত।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘এই দেশে (স্পেনে) তারা কিছু না করতেই আপনাকে (লাল কার্ড দেখিয়ে) বের করে দেয়। আমি জিজ্ঞেস করলাম কেনো? সে (রেফারি) বললো, “এটিচ্যুড! এটিচ্যুড!” যাই হোক আমরা এটি নিয়ে আর কথা বাড়াতে চাই না।’

এখন দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ হওয়ায় দুইটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে কোচকে পাবে না বার্সেলোনা। রোববার রাতে ঘরের মাঠে লেভান্তে এবং আগামী রোববার বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে কঠিন ম্যাচটি দর্শকসারিতে বসে দেখতে হবে বার্সা কোচকে।

এসএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]