বৃষ্টির পর আলোর ঝলকানি

রফিকুল ইসলাম
রফিকুল ইসলাম রফিকুল ইসলাম , বিশেষ সংবাদদাতা মস্কো, রাশিয়া থেকে
প্রকাশিত: ১২:১১ এএম, ১৬ জুলাই ২০১৮

সকালে যখন মস্কোর তাপমাত্রা ২৬-২৭ তখন এখানে প্রবাসী এক বাংলাদেশি বলেছিলেন ‘আজ বৃষ্টি হবে'। স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় যখন খেলা শুরু হলো তার অনেক আগে থেকেই মুখ ভার করেছিল মস্কোর আকাশ। সেই বৃষ্টি নেমেছে ম্যাচ শেষ হওয়ার পর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান চলাকালে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন আর ক্রোয়েশিয়ার প্রেসিডেন্ট কলিনদা গ্রাবার কিতারোভিচকে সঙ্গে নিয়ে ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনো যখন মঞ্চে উঠলেন তার কিছু সময়ই পরই বৃষ্টি শুরু হলো আকাশ ভেঙে। এমনই বৃষ্টি যে ছাতা দিয়েও মাথা বাঁচাতে পারলেন না অতিথিরা।
Fifa
বৃষ্টির মধ্যেই পুরস্কার বিতরণ করলেন ফিফা প্রেসিডেন্ট। অতিথিরা মঞ্চ ত্যাগের পরও চললো বষ্টি। একই সঙ্গে শুরু হলো আতশবাজি। আতশবাজি আর বৃষ্টি মিলে অপূর্ব এক পনি-আলোর খেলা চললো মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে।

ফ্রান্সের সমর্থকরা নেচে গেয়ে সময় কাটিয়েছেন। তবে ক্রোয়েশিয়ার সমর্থকরাও গ্যালারিতে ছিলেন পুরস্কার বিতরণীর পুরোটা সময়। তাদের স্বপ্নের অধিনায়ক লুকা মদ্রিচ যখন গোল্ডেন বল নিলেন তখন তারা 'ক্রোয়েশিয়া', 'ক্রোয়েশিয়া' বলে আকাশ ফাটিয়েছেন। পুরো দল যখন রানার্সআপ ট্রফি নিয়েছে তখনো। বিশ্বকাপে দ্বিতীয় হওয়াও কী কম কথা।

শেষ বাঁশির পর মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়াম হয়ে উঠতে পারতো এক টুকরো ক্রোয়েশিয়া। দেশটির সমর্থকরা সেই প্রস্তুতি নিয়েই এসেছিল। স্টেডিয়ামে হাজার হাজার সমর্থক। কিন্তু মস্কোর রাস্তায় ছিল তারও কয়েকগুণ। কিন্তু ক্রোয়েশিয়া নয়, ম্যাচ শেষে মস্কোর এ স্টেডিয়াম হয়ে উঠলো এক টুকরো ফ্রান্স।

আরআই/এসএএস/আরএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]