হাতের মেহেদি না শুকাতেই স্বামীর হাতে নববধূ খুন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ০৪:০৩ পিএম, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ০৪:২৩ পিএম, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭
হাতের মেহেদি না শুকাতেই স্বামীর হাতে নববধূ খুন

বগুড়া শহরে হাতের মেহেদি না শুকাতেই ফাতেমা (১৮) নামের এক গৃহবধূকে গলাকেটে হত্যা করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে তার স্বামী।

এ ঘটনায় আহত অবস্থায় স্বামী সুজনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা। ঘটনাটি ঘটেছে বগুড়ায় শহরের চকফরিদ এলাকায় বুধবার ভোররাতে। সকালে হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি জানাজানি হয়। তবে হত্যাকাণ্ডের কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত নয় কেউ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শহরের কলোনী চকফরিদ এলাকার আব্দুল রশিদের ছেলে সুজন পেশায় একজন রঙমিস্ত্রি। এক মাস আগে নাটোরের সিংড়া এলাকার তোজাম্মেল হকের মেয়ে ফাতেমার সঙ্গে তার বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকে সেখানেই থাকতো তারা। মাত্র ১৫দিন আগে সুজন তার স্ত্রীকে চকফরিদ এলাকায় নিজেদের বাসায় নিয়ে আসে।

বুধবার ভোররাতের দিকে ঘুমন্ত স্ত্রী ফাতেমাকে ছুরি দিয়ে গলাকেটে হত্যার পর নিজের গলাকেটে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায় স্বামী সুজন। সকালে বিষয়টি জানাজানি হলে পুলিশে খবর দেয়া হয়।

এর আগেই আহত অবস্থায় সুজনকে আটক করে রাখে স্থানীয় লোকজন। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে আহত সুজনকে গ্রেফতার করে চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। একই সঙ্গে নিহত গৃহবধূর মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়।

বগুড়া সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) আসালাম আলী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, হত্যাকাণ্ডের প্রকৃত কারণ জানা যায়নি। তবে প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে সুজন মানসিক রোগী। তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা ঘটনার সময় বাড়িতে না থাকার কারণে তথ্য পেতে কিছুটা দেরি হচ্ছে। এ ব্যাপারে হত্যা মামলা হয়েছে বলেও জানান ওসি।

এএম/জেআইএম