নরসিংদীতে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে হত্যা, ভাসুর আটক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি নরসিংদী
প্রকাশিত: ০১:০৭ পিএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ০১:৩২ পিএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭
নরসিংদীতে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে হত্যা, ভাসুর আটক
প্রতীকী ছবি

নরসিংদীর মাধবদীতে যৌতুকের বলি হয়েছেন ফারজানা ইয়াসমিন জেরিন (২২) নামে এক গৃহবধূ। র্দীঘদিন নির্যাতনের পর ওই গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে তার স্বামী। হত্যার পর ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে আত্মহত্যার নাটকের চেষ্টা চালায় বলে অভিযোগ করেছেন নিহতের পরিবার।

এঘটনায় নিহতের বাবা জামাই ও মেয়ের ভাসুর তাঁতীলীগের আহ্বায়ক শাহিনুর মিয়াসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মাধবদী থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। পুলিশ শাহিনুর মিয়াকে আটক করেছে।

মামলার আসামিরা হলেন, নিহত ফারজানা ইয়াসমিন জেরিনের স্বামী শামীম মিয়া, তার ভাসুর শাহিনুর মিয়া, শাহীনুরের স্ত্রী মনি বেগম ও মা সালেহা বেগম।

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, ৩ বছর পূর্বে মাধবদীর আনন্দী গ্রামের আব্দুল মান্নান মিয়ার ছেলে আমিরুল হাসান শামীমের সঙ্গে বেলাবর জয়নাল আবেদিন ভুইয়ার মেয়ে ফারজানা ইয়াসমিন জেরিনের বিয়ে হয়। গত শুক্রবার রাতে যৌতুক দাবি করাকে কেন্দ্র করে স্বামী শামিমের সঙ্গে জেরিনের ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে জেরিনকে মারপিট করা হয়। এরপর গলায় ওড়না পেঁচিয়ে জেরিন আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে বলে শ্বশুর বাড়ির লোকজন গুজব ছড়ান। জেরিন গুরুত্বর অসুস্থ হয়ে গেলে রাত ৩টার দিকে তাকে স্থানীয় হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে পথেই তার মৃত্যু হয়।

মাধবদী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মো. কামাল হোসেন বলেন, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। ইতোমধ্যেই যৌতুকের দাবিতে হত্যার একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। সেখানে স্বামী, ভাসুর তার স্ত্রীসহ ৪ জনকে আসামি করা হয়েছে। এর মধ্যে ভাসুর শাহীনকে শাহবাগ থানা পুলিশ আটক করেছেন।

সঞ্জিত সাহা/এমএএস/জেআইএম