প্রতিটি শিক্ষার্থীকে উদ্দেশ্য নিয়ে লেখাপড়া করতে হবে

উপজেলা প্রতিনিধি মির্জাপুর (টাঙ্গাইল)
প্রকাশিত: ০৭:৪৫ পিএম, ১০ মার্চ ২০১৮ | আপডেট: ১২:৩৪ পিএম, ১২ মার্চ ২০১৮

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, আগের সরকারগুলোর রাষ্ট্র পরিচালনায় কোনো দিক নির্দেশনা ছিল না। বর্তমান সরকার প্রধান শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে ২০২১ সালে মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ ও ২০৪১ সালের মধ্যে পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী রাষ্ট্রের কাতারে নিয়ে যাওয়ার ভিশন ঘোষণা দিয়ে দেশ পরিচালনা করছেন। শেখ হাসিনা সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষে রাষ্ট্র পরিচালনা করছেন।

শনিবার দুপুরে মির্জাপুর উপজেলার ভাওড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, শিক্ষার্থীরা রাষ্ট্রের টাকায় লেখাপড়া করছে। শিক্ষকদের বেতন, বিনামূল্যে বই বিতরণ, কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে ভবন নির্মাণ করে দিচ্ছে সরকার। কাজেই আজকের শিক্ষার্থীদের বুঝতে হবে আমরা ১৬ কোটি মানুষের কাছে ঋণি। তাই দেশের মানুষের প্রতি শিক্ষার্থীদের দায়িত্বও আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেমন ভিশন নিয়ে রাষ্ট্র পরিচালনা করছেন তেমনি প্রতিটি শিক্ষার্থীকে উদ্দেশ্য নিয়ে লেখাপড়া করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, যে শিক্ষার্থী বাংলাদেশ জন্মের ইতিহাস জানে না সে দেশকে কীভাবে ভালোবাসবে। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি- আগামী পিএসসি পরীক্ষায় ১৯৪৮ সাল থেকে ৭০’ এর নির্বাচন পর্যন্ত বাংলাদেশ স্বাধীনতার ইতিহাসের ওপর ৫০ নম্বর এবং ১৯৭১ সালের দীর্ঘ নয় মাসের মুক্তিযুদ্ধের ওপর ৫০ নম্বর থাকবে।

এর আগে সকাল ৯টায় ভাওড়া উচ্চ বিদ্যালয় প্রঙ্গন থেকে একটি র্যালি বের করা হয়। র্যালি শেষে বিদ্যালয় সংলগ্ন মাঠে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

অবসরপ্রাপ্ত অতিরিক্ত সচিব মো. ওয়াজেদ আলী খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মো. একাব্বর হোসেন এমপি, রাশিয়ার পিপলস ফ্রেন্ডশীপ ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ও ব্যবস্থাপক ইয়েসিনরা জয়া ইভানোভনা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ববিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. চৌধুরী কামরুজ্জামান, মাদরাসা ও কারিগরি বোর্ডের যুগ্ম সচিব মো. ফারুক হোসেন, ভাওড়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. আমজাদ হোসেন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাবিবুর রহমান হাসান, বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি আবু সাইদ ভূঁইয়া, বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র ও অনুষ্ঠানের প্রধান পৃষ্ঠপোষক রাশিয়ায় কর্মরত প্রকৌশলী আলমগীর জলিল, দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী তামান্না আক্তার প্রমুখ।

এস এম এরশাদ/আরএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :