থানায় নির্যাতনের অভিযোগ, ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়লেন নৈশপ্রহরী

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ১২:২৮ এএম, ২২ মে ২০১৮

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একটি চুরির ঘটনায় পুলিশি নির্যাতনের শিকার হয়ে রাসেল মিয়া (১৯) নামে এক নৈশপ্রহরী থানা ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে আহত হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার রাত ৯টার দিকে সদর মডেল থানা ভবনে এ ঘটনা ঘটে।

রাসেলকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। সে পৌর শহরের মধ্যপাড়া এলাকার আলকাছ মিয়ার ছেলে ও শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংকের ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখার নৈশপ্রহরী।

শহরের ‘সিটি সেন্টার’ নামে একটি বিপণিবিতানের ফ্যাশন হাউজে চুরির ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিকেলে রাসেলকে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সোমবার ভোরে সিটি সেন্টারের ‘স্বপ্নলোক ফ্যাশন হাউজে’ চুরি সংঘঠিত হয়। ক্যাশবাক্স থেকে প্রায় দুই লাখ টাকা খোয়া যায় বলে দাবি করে কর্তৃপক্ষ। দুপুরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. ইকবাল হোসেন ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রেজাউল কবিরসহ সদর মডেল থানা পুলিশের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

পরে সিটি সেন্টারের নৈশপ্রহরী এবং ওই ফ্যাশন হাউজের কর্মচারীসহ বেশ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এদের মধ্যে এক শিশুও রয়েছে। বিকেলে সিটি সেন্টারের শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংকের নৈশপ্রহরী রাসেলকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। যদিও এ চুরির ঘটনায় রাত ১০টা পর্যন্ত সদর মডেল থানায় কোনো মামলা হয়নি বলে জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. ইকবাল হোসেন।

আহত রাসেলের মামা খবির মিয়ার অভিযোগ করে বলেন, বিকেলে রাসেলকে বাড়ি থেকে ডেকে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। পরে তাকে অমানবিকভাবে নির্যাতন করে ছাদ থেকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয়।

তবে স্বজনদের অভিযোগ অস্বীকার করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন বলেন, চুরির ঘটনায় জিজ্ঞাসবাদের জন্য রাসেলসহ আরও কয়েকজনকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। ইফতারের সময় থানা ভবনের দ্বিতীয় তলায় থাকা রাসেল কর্তব্যরত কনস্টেবলের চোখ ফাঁকি দিয়ে ছাদে উঠে পড়ে। এরপর সে সেখান থেকে লাফিয়ে নিচে পড়ে যায়। বিষয়টি আমরা তদন্ত করে দেখছি।

আজিজুল সঞ্চয়/বিএ

আপনার মতামত লিখুন :