হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতার নিয়ে লুকোচুরি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি গাজীপুর
প্রকাশিত: ১০:৪৮ এএম, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ থানার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. মোশারফ হোসেনের খুনের অভিযুক্ত এক আসামিকে গাজীপুরে গ্রেফতার করা নিয়ে লুকোচুরি করছে পুলিশ।

শুক্রবার সকালে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার রাখালিয়াচালা এলাকা থেকে আব্দুল জলিল গাইন নামে ওই আসামিকে গ্রেফতার করে কালিয়াকৈর থানার পুলিশ। গ্রেফতার জলিল সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ থানার কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য এবং কৃষ্ণগর ইউনিয়নের শঙ্করপুর এলাকার হাবিবুল্লাহ গাইনের ছেলে।

রাখালিয়াচালা এলাকার ব্যবসায়ি তালহা ইবনে অলি বলেন, সকালে রাখালিয়া চালা এলাকায় জলিল গাইন মোবাইল ফোনে কথা বলার সময় এক পর্যায়ে বলছিলেন, আমি হাইকোর্ট থেকে জামিন হয়ে নেই তারপর ওদের দেখাব। চেয়ারম্যান খুন করেছি। ওদেরও দেখব। এসময় পথচারী স্থানীয় ইমন ও ওমর ওই কথা শুনার পর সন্দেহ হলে তাকে আটক করে। পরে জলিল তাদের এক লাখ টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয়ারও প্রস্তাব দেন। কিন্তু তারা তাতে রাজি না হয়ে পুলিশে খবর দেয়।

ওমর ও ইমন জানান, পত্রিকায় ছবিসহ খবর দেখেছি গত ৮ সেপ্টেম্বর রাতে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জের কৃষ্ণনগর বাজারে কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেনকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়। খুনের পর থেকে জলিল গাইন পালিয়ে কালিয়াকৈর উপজেলার রাখালিয়াচালা এলাকায় আত্মগোপন করে ছিলেন। গত বৃহস্পতিবার জলিল গাইনের ছবিসহ খবরটি বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশ করা হয়। তাকে আটকের পর পত্রিকায় ছবি দেখে জলিল গাইনকে চিনতে পেরে স্থানীয় মৌচাক পুলিশ ফাঁড়িতে খবর দেয়া হয়। খবর পেয়ে পুলিশ জলিল গাইনকে উপজেলার রাখালিয়াচালা মাস্টার মার্কেট থেকে আটক করে নিয়ে গেছে।

মৌচাক ফাঁড়ির সহকারি উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সাইফুল ইসলাম জানান, সাতক্ষীরা থেকে ইউপি চেয়ারম্যানকে খুন হওয়ার পর জলিল পালিয়ে রাখালিয়াচালায় আত্মগোপন করেছিল। পরে এলাকাবাসী তাকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। বেলা ১১টার দিকে তাকে সেখান থেকে আটক করে ফাঁড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর আসামি কোথায় আছে জানি না।

এ বিষয়ে ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই সাইফুল আলম সব জানেন। তাকে জিজ্ঞাসা করেন।

তবে মৌচাক ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মো. সাইফুল আলম জানান, কালিয়াকৈর থানায় খবর নেন, এবিষয়ে থানায় সব তথ্য আছে।

কালিয়াকৈর থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলাম ও ডিউটি অফিসার মো. নজরুল ইসলাম জানান, রাত ৯টা পর্যন্ত ওই নামে কোনো আসামি কালিয়াকৈর থানায় পাঠায়নি। শনিবার সকালে কালিয়াকৈর থানার ডিউটি অফিসার উপ পরিদর্শক (এসআই) ফাতেমা আক্তার জানান, এ নামে কোনো আসামি থানা হাজতে নেই।

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাসান হাফিজুর রহমান জানান, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ৮ সেপ্টম্বর রাতে খুন হয়েছিলেন কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন। এ ঘটনায় মামলা হওয়ার পর থেকে জলিল গাইনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। তবে এর আগেও একাধিকবার তিনি গ্রেফতার হয়েছেন বলে খবর রটেছিল।

মো. আমিনুল ইসলাম/আরএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :