ছাত্রীকে জড়িয়ে ধরে দৌড় দিল ম্যানেজিং কমিটির সদস্য

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি টাঙ্গাইল
প্রকাশিত: ০৯:২৯ পিএম, ১৫ নভেম্বর ২০১৮

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলায় নবম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে পাইস্কা বালিকা উচ্চবিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির এক সদস্য গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত শফিকুল ইসলাম উপজেলার পাইস্কা ইউনিয়নের কয়ড়া গ্রামের মৃত আজগর আলী ফকিরের ছেলে। বৃহস্পতিবার তাকে টাঙ্গাইল আদালতে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় বুধবার রাতেই ওই ছাত্রী বাদী হয়ে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে ধনবাড়ী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছে।

এদিকে, এই খবর জানাজানি হলে বৃহস্পতিবার এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে অভিযুক্ত শফিকুলের বাড়িতে ভাঙচুর চালায়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

পুলিশ ও ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রী জানায়, পাইস্কা বালিকা উচ্চবিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সদস্য শফিকুল ইসলাম সোমবার রাত ১০টার দিকে স্কুলছাত্রীকে (১৪) একা পেয়ে জড়িয়ে ধরে। সেইসঙ্গে স্কুলছাত্রীর মুখ চেপে ধরে বাড়ির পশ্চিম পাশে জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

এ সময় স্কুলছাত্রীর ধস্তাধস্তি ও চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে শফিকুল তার পায়ের জুতা রেখে দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে ঘটনা জানাজানি হলে আপোস-মীমাংসার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয় শফিকুলের পরিবার।

Tangail

খবর পেয়ে পুলিশ বুধবার রাতে ঘটনাস্থলে যায়। পরে পুলিশের সহায়তায় স্কুলছাত্রী থানায় গিয়ে বুধবার রাতে বাদী হয়ে শফিকুলের বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করে। এ ঘটনায় রাতেই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত শফিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এদিকে, স্কুলছাত্রী ধর্ষণচেষ্টার ঘটনায় শফিকুলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বৃহস্পতিবার বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী। একপর্যায়ে শফিকুলের বাড়িতে ভাঙচুর চালায় তারা।

এ সময় ধনবাড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর ফারুক আহমদ ও ধনবাড়ী থানা পুলিশের ওসি মজিবর রহমান অভিযুক্ত সফিকুলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আশ্বাস দিলে শান্ত হয় গ্রামবাসী।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল মজিদ, মহিলা সদস্য জমিলা বেগম, স্কুলশিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক বলেন, শফিকুল এর আগেও ক্ষমতাসীন দলের নাম ভাঙিয়ে অনেক অপকর্ম করেছে। এ ঘটনায় তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি আমরা।

ধনবাড়ী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মজিবর রহমান বলেন, এ ঘটনায় ভিকটিম নিজে বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছে। ঘটনায় জড়িত সফিকুলকে গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আরিফ উর রহমান টগর/এএম/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :