স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার বিরুদ্ধে পা কেটে নেয়ার অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৯:৫৮ পিএম, ১৯ এপ্রিল ২০১৯

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি আবুল বাশারের বিরুদ্ধে কালা মিয়া (৪৫) নামে এক ব্যক্তির পা কেটে নেয়ার অভিযোগ ওঠেছে। শুক্রবার বিকেলে উপজেলার রূপসদী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় কালা মিয়ার ছেলে বিপ্লব মিয়ার দুই পায়ের রগ কেটে দিয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। খবর পেয়ে কেটে নেয়া পা উদ্ধারে অভিযান শুরু করেছে বাঞ্ছারামপুর থানা পুলিশ।

আহত কালা মিয়া ও স্থানীয়রা জানান, কালা মিয়ার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আবুল বাশারের বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধের জেরে শুক্রবার বিকেলে আবুল বাশার ও সহযোগীরা কালা মিয়া এবং তার ছেলে বিপ্লব মিয়াকে (১৯) বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে টেঁটাবিদ্ধ করেন। পরে কালা মিয়া মাটিতে লুটে পড়লে ধারালো দা দিয়ে তার ডান পায়ের হাঁটু থেকে নিচ পর্যন্ত কেটে নিয়ে যায় তারা। এ সময় কালা মিয়ার ছেলে বিপ্লবের দুই পায়ের রগও কেটে দেয় আবুল বাশার ও তার সহযোগীরা। পরে তাদের উদ্ধার করে প্রথমে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের ঢাকায় রেফার্ড করেন।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি আবুল বাশার বলেন, আমি ঢাকায় অবস্থান করছি। যতটুকু শুনেছি কালা মিয়া আমাদের গ্রামের এক বাড়িতে চুরি করতে গিয়েছিল। সেই বাড়ির লোকজন ও এলাকাবাসী ধরে তাকে গণপিটুনি দিয়েছে। পরবর্তীতে কী হয়েছে আমি জানি না।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বাঞ্ছারামপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সালাহ্ উদ্দিন চৌধুরী জাগো নিউজকে বলেন, কালা মিয়া চুরি ও ডাকাতির সঙ্গে জড়িত আর তার ছেলে বিপ্লব মাদকব্যবসার সঙ্গে জড়িত। আমরা যতটুকু জানতে পেরেছি এলাকার সংক্ষুব্ধ মানুষ এ ঘটনা ঘটিয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আজিজুল সঞ্চয়/জেএইচ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :