বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ০৫:৫৬ পিএম, ২০ নভেম্বর ২০১৯
প্রতীকী ছবি

বগুড়ার ধুনটে জমিজমা-সংক্রান্ত বিরোধের জেরে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে আব্দুস সবুর (৩৬) নামের এক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে কামরুল ইসলাম নামে বহিষ্কৃত অপর এক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে।

বুধবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলার নিমগাছী ইউনিয়নের পশ্চিম নান্দিয়ারপাড়া ফকিরপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আব্দুস সবুর ওই গ্রামের আব্দুর রহিম ফকিরের ছেলে। তিনি পেশায় পল্লীচিকিৎসক এবং উপজেলা যুবলীগের সদস্য ছিলেন।

নিহতের পরিবারের দাবি, আব্দুস সবুরের সঙ্গে প্রতিবেশী জনাব আলীর ছেলে ও নিমগাছি ইউনিয়ন যুবলীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলামের জমিজমা নিয়ে বিরোধ রয়েছে। এর জেরে বুধবার পশুর চিকিৎসা করানোর কথা বলে আব্দুস সবুরকে বাড়ি থেকে ডেকে নেন কামরুল ইসলাম। পরে বাড়ির পাশে একটি বাগানের ভেতর নিয়ে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

নিহতের চাচা উপজেলার যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সুজাউদৌলা রিপন বলেন, বসতবাড়ির ১৮ শতক জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে আব্দুস সবুরকে পরিকল্পিতভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে কামরুল ইসলাম ও তার লোকজন। এ হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

তিনি আরও জানান, অভিযুক্ত কামরুল ইসলাম নিমগাছি ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। সম্প্রতি মাদক কারবারের অভিযোগে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে আব্দুস সবুরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

লিমন বাসার/এমবিআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]