এক কাতল ৪২ হাজার, পাঙাশ বিক্রি হলো ২৪ হাজার টাকায়

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজবাড়ী
প্রকাশিত: ১২:১৪ পিএম, ০৬ জুলাই ২০২০

পদ্মায় ধরা পড়ছে একের পর এক বিশাল আকৃতির মাছ। কেবল সোমবারেই (৬ জুলাই) রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়ার পদ্মা নদীর অংশে জেলেদের ধরা পড়ে ২৮ কেজি ওজনের একটি কাতল ও ২০ কেজি ওজনের এক পাঙাশ। এর আগে ভোরে ধরা পড়ে ২৮ কেজি ওজনের আরও একটি পাঙাশ মাছ।

সকালে ধরা পড়া কাতল ও পাঙাশ মাছটি ৭৬ হাজার ৪শ টাকায় বিক্রি করা হয়েছে। সোমবার সকালে দৌলতদিয়া ঘাটের মাছ ব্যবসায়ী মো. সাজাহান সম্রাট দুই জেলের কাছ থেকে ওই মাছ দুটি কিনে গাজীপুরের দুই ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করেছেন। এছাড়া আগে ধরা পড়া ২৮ কেজি ওজনের পাঙাশটি ৩৮ হাজার টাকায় কেনেন দৌলতদিয়া ঘাটের মাছ ব্যবসায়ী মো. চান্দু মোল্লা।

ঘাটের মাছ ব্যবসায়ী মো. সাজাহান সম্রাট বলেন, দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটের নিচ এলাকা থেকে ভোরে মাছ ধরার সময় রহমান হলদারের জালে ২৮ কেজি ওজনের একটি কাতল মাছ ধরা পড়ে। সেই মাছ আড়তে বিক্রি করতে আনলে তিনি ১৫শ টাকা কেজিতে ৪২ হাজার ২শ টাকায় কিনে নেন। এছাড়া শাহিন হলদার নামে আরেক জেলের জালে ধরা পড়া ২০ কেজি ওজনের পাঙাশটি আড়ত থেকে ১২শ টাকা কেজিতে ২৪ হাজার টাকায় কিনে নেন।

পরবর্তীতে মুঠোফোনে যোগাযোগ করে গাজীপুরের বড় দুই ব্যবসায়ীর কাছে কাতল ১৮শ টাকা কেজি দরে ৫০ হাজার ৪শ ও পাঙাশটি ১৩শ টাকা কেজিতে ২৬ হাজার টাকায় বিক্রি করেছেন। প্রতিদিন ঘাটে বড় বড় মাছ কেনা বেচা হচ্ছে।

এর আগে ভোরে দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটের অদূরে পদ্মা নদীর অংশে মাছ ধরার সময় গুরু হলদারের জালে বিশাল আকৃতির আরেকটি পাঙাশ ধরা পড়ে। সকালে নদীর পাড়ে এনে ওজন করে দেখেন মাছটির ওজন ২৮ কেজি। পরে ওই জেলে দৌলতদিয়া ঘাটের একটি আড়তে মাছটি নিয়ে এলে ঘাটের মাছ ব্যবসায়ী মো. চান্দু মোল্লা ১ হাজার ৩৫০ টাকা কেজি দরে ৩৭ হাজার ৮শ টাকায় মাছটি কিনে নেন।

মাছ ব্যবসায়ী মো. চান্দু মোল্লা বলেন, ৩৭ হাজার ৮শ টাকায় মাছটি কিনেছেন তিনি। একটু লাভে ১ হাজার ৪৫০ অথবা ১৫শ টাকা কেজিতে মাছটি বিক্রি করবেন।

রুবেলুর রহমান/এফএ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]