চরভদ্রাসন উপজেলা চেয়ারম্যান হলেন নৌকার প্রার্থী কাউছার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ১০:৩৮ পিএম, ১০ অক্টোবর ২০২০ | আপডেট: ১০:৪৩ পিএম, ১০ অক্টোবর ২০২০

ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আলহাজ্ব মো. কাউছার বিজয়ী হয়েছেন। ১৬ হাজার ৫২৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী ঘোড়া প্রতীকের কে এম ওবায়দুল বারী দীপু পেয়েছেন ৫হাজার ৩৪৬ ভোট। এছাড়া বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের এজিএম বাদল আমিন পেয়েছেন ১১৪ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী মাসুদ রানা টেলিফোন প্রতীকে পেয়েছেন ৯৮০ ভোট, মোটরসাইকেল প্রতীকের শেখ খবির উদ্দিন পেয়েছেন ১হাজার ১৪৯ ভোট ও দোয়াত কলম প্রতীকের ফয়সাল হাসান শাওন পেয়েছেন ৩৩৩ ভোট, আনারস প্রতীকের আনোয়ার মোল্লা পেয়েছেন ৫৭ ভোট।

এ নির্বাচনে ২২ কেন্দ্রের মধ্যে ২১ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ করা হয়। একটি কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। শনিবার (১০ অক্টোবর) সকাল থেকে বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলে। তবে নির্বাচনে নৌকার প্রতিকের প্রার্থী ছাড়া অন্য প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা অনিয়মের অভিযোগ তুলেছেন।

মোটরসাইকেল প্রার্থী খবির উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, উপজেলার তিনটি ইউনিয়নের মধ্যে সদর ইউপির সকল ভোট কেন্দ্রে নৌকার এজেন্ট ছাড়া আর কেউ ছিল না। সেখানে ভোট কাস্ট হয়েছে ৭০ শতাংশ। আর অন্য দুটিতে ১৫ থেকে ২০ শতাংশ। এতেই প্রমাণ করে নৌকার এজেন্টরাই ভোট দিয়ে বিজয় ছিনিয়ে নিয়েছে।

একই অভিযোগ করেন স্বতন্ত্র প্রার্থী কে এম ওবায়দুল বারী দীপু খান। তিনি বলেন, নৌকা প্রার্থীর নিজ ইউনিয়নে ৭০ শতাংশের বেশি ভোট কাস্টিং দেখানো হয়েছে। বাস্তবে কোনো ভোট কেন্দ্রে ২০ শতাংশের বেশি ভোটার উপস্থিত ছিল না। আমাদের ইউনিয়নে শতভাগ নিরপেক্ষ নির্বাচন হলো। আর নৌকার প্রার্থীর ইউনিয়নের কেন এমন হলো?

এ ব্যাপারে জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেষ্ঠ্য নির্বাচন কর্মকর্তা নওয়াবুল ইসলাম বলেন, এ নির্বাচনে ২২ কেন্দ্রের মধ্যে একটিতে অভিযোগ থাকায় আমরা সেখানে ভোটগ্রহণ স্থগিত করেছি।

তিনি বলেন, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী শান্তিপূর্ন নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন নৌকা প্রতীকের মো. কাউছার।

গত বছর ২৩ অক্টোবর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন মুসার মৃত্যুর কারণে পদটি শূন্য হয়ে যায়। গত ২৯ মার্চ এ উপ-নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। করোনার কারণে তা পিছিয়ে ১০ অক্টোবর ভোট গ্রহণের দিন ঠিক করা হয়।

বি কে সিকদার সজল/এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]