মুন্ডুমালায় স্বতন্ত্র প্রার্থী সাইদুরকে আ.লীগ থেকে বহিষ্কার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৯:১৯ পিএম, ২২ জানুয়ারি ২০২১

রাজশাহীর তানোর উপজেলার মুন্ডুুমালা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মেয়র প্রার্থীর (নৌকা) বিরোধিতা করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন একই দলের পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইদুর রহমান। তবে দলীয় গঠনতন্ত্র ভঙ্গের কারণে তাকে মুন্ডুমালা পৌর আওয়ামী লীগ বহিষ্কার করেছে।

বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) আওয়ামী লীগ মুন্ডুুমালা পৌর শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম মোস্তফা ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহীম হাবিবুল্লাহ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, চলতি বছরের আগামী ৩০ জানুয়ারি মুন্ডুুমালা পৌরসভা নির্বাচন। আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনীত মেয়র প্রার্থী আমির হোসেন আমীনের (নৌকা) বিরোধিতা করে ‘জগ প্রতীকে’ একই দলের সাংগঠনিক পদ নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে মেয়র পদে নির্বাচন করছেন সাইদুর রহমান। তিনি আওয়ামী লীগের স্বপদে থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত মেয়র প্রার্থীর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে নির্বাচন করছেন, যা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সম্পূর্ণ গঠনতন্ত্র বিরোধী।

‘তাই আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রের (প্রতিষ্ঠানিক শৃঙ্খলা) ৪৭-এর ১১ ধারা অনুযায়ী ও পৌর আওয়ামী লীগের ২০ জানুয়ারির ১ নম্বর রেজুলেশন মোতাবেক সাইদুর রহমানকে মুন্ডুমালা পৌর আওয়ামী লীগের ‘সাংগঠনিক সম্পাদক’ দলীয় পদ হতে বহিষ্কার করা হলো, যা অবিলম্বে কার্যকর করা হবে।’

বহিষ্কারের বিষয়ে সাইদুর রহমান বলেন, ‘সর্বস্তরের পৌর নাগরিকদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছি। তবে বহিষ্কারের বিষয়টি লোকমুখে শুনেছি।’

প্রসঙ্গত, তানোর উপজেলার মুন্ডুমালা পৌরসভা ২০০২ সালে ১৪ নভেম্বর স্থাপিত হয়। এ পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ১৭ হাজার ৬৯৬ জন। এরমধ্যে পুরুষ আট হাজার ৭৪৫ এবং নারী ভোটার আট হাজার ৯৫১। মোট ভোটকেন্দ্র ১০টি।

তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিতব্য এ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত আমির হোসেন আমিনকে নৌকা প্রতীক, বিএনপি মনোনীত ফিরোজ কবিরকে ধানের শীষ ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী সাইদুর রহমানকে জগ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। এছাড়া ১৩ জন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ও ২৯ জন সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থীরা স্ব-স্ব প্রতীকে ভোটের মাঠে রয়েছেন।

এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]