স্কুলছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় এএসআইসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
প্রকাশিত: ০১:৫৭ পিএম, ০৯ মার্চ ২০২১
ছবি- জিতু কবীর

রংপুরে চাঞ্চল্যকর স্কুলছাত্রী ধর্ষণের মামলায় মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের সাবেক এএসআই রাহেনুলসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছে পিবিআই।

মামলা দায়েরের চারমাস পর মঙ্গলবার (৯ মার্চ) দুপুরে পৃথকভাবে রংপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে এবং মানব পাচার অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পিবিআইয়ের রংপুর পুলিশ সুপার এ বি এম জাকির হোসেন।

তিনি বলেন, রিমান্ডে থাকাকালে এএসআই রাহেনুল গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রদান করছেন। এছাড়া ভুক্তভোগী নিজেও আদালতে তার বিরুদ্ধে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে জবানবন্দি দিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, তাদের দেয়া গুরুত্বপূর্ণ তথ্য, বস্তুগত তথ্য প্রমাণ এবং ডিএনএ পরীক্ষা শেষে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনাটি প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে। জড়িতদের সম্পৃক্ততা পাওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে।

jagonews24

চার্জশিটে উল্লেখ করা হয়, আসামি এসআই রাহেনুল ইসলাম প্রেমের ফাঁদে ফেলে দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে মেঘলার ভাড়াবাড়িতে ২০২০ সালের ১৮ অক্টোবর ধর্ষণ করেন এবং পরে ভুক্তভোগীকে তার বাড়ির কাছে মোটরসাইকেলযোগে পৌঁছে দেন। রাতে বাড়ি ফেরা নিয়ে মেয়েটির সঙ্গে পরিবার রাগারাগি করলে রাত ১০টায় মেঘলার সেই বাড়িতে ফিরে আসে মেয়েটি।

এদিকে মেঘলা তার বান্ধবী সুরভী আক্তারের সঙ্গে যোগসাজশ করে অপর দুই আসামি বাবুল ও কালামকে ডেকে এনে ৩০০০ টাকার বিনিময়ে পরের দিন সকালে ভুক্তভোগীকে ধর্ষণ করায়। এতে মেয়েটি অসুস্থ হয়ে পড়লে বিষয়টি জানাজানি হয়। এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা ২৬ অক্টোবর হারাগাছ থানায় মামলা করেন।

পরে মামলাটি পিবিআই এ হস্তান্তর করা হয়। অভিযান চালিয়ে ওই দুই নারী এবং বাবুল ও কালামকে গ্রেফতার করে পুলিশ এবং পুলিশ লাইনে সংযুক্ত এএসআই রাহেনুলকেও গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়। সেইসঙ্গে রাহেনুলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

তদন্ত শেষে মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ সদস্য রাহেনুল এবং দুই নারী মেঘলা ও সুরভীর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন এবং মানবপাচার ও বাবুল এবং কালামের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে চার্জশিট দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক সাইফুল ইসলাম।

জিতু কবির/এসএমএম/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]