প্রবাসীর স্ত্রীকে নিয়ে উধাও আইনজীবী, গ্রেফতারি পরোয়ানা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজবাড়ী
প্রকাশিত: ০৫:১৬ পিএম, ১৬ জানুয়ারি ২০২২
প্রতীকী ছবি

প্রবাসীর স্ত্রীকে ফুঁসলিয়ে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগে করা মামলায় রাজবাড়ীর এক আইনজীবীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম নিজাম হায়দার। তিনি রাজবাড়ী জেলা বারের সদস্য।

রাজবাড়ীর ২ নম্বর আমলি আদালত থেকে এ গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। একই সঙ্গে, অভিযুক্ত নারীর বিরুদ্ধে সমন জারি করেছেন আদালত।

এর আগে রোববার (১৬ জানুয়ারি) দুপুরে প্রবাসী মোক্তার বিশ্বাস বাদী হয়ে রাজবাড়ীর ২ নম্বর আমলি আদালত ও রাজবাড়ীর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অভিযুক্ত আইনজীবীর বিরুদ্ধে দুটি মামলা করেন।

অভিযুক্ত আইনজীবী নিজাম হায়দার রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার মৌরটা ইউনিয়নের মালঞ্চী গ্রামের বাসিন্দা। মামলায় নিজাম হায়দারকে ১ নম্বর এবং ওই নারীকে ২ নম্বর আসামি করা হয়েছে।

মামলার বাদী মোক্তার বিশ্বাস পাংশা উপজেলার মৌরাট ইউনিয়নের মালঞ্চী গ্রামের বাসিন্দা ও অভিযুক্ত আইনজীবীর প্রতিবেশী।

মামলা সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে সৌদি আরবে ছিলেন মোক্তার বিশ্বাস। পাঁচ মাস আগে দেশে ফিরে তিনি তার টাকা-পয়সা স্ত্রীর কাছে গচ্ছিত রাখেন। এরপর তিনি আবার সৌদি চলে যান। তিনি প্রবাসে থাকার সুযোগে নিজাম হায়দার তার স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে তোলেন। শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে নিজাম হায়দার তার স্ত্রীকে নিয়ে উধাও হন। যাওয়ার সময় তার স্ত্রীর কাছে গচ্ছিত নগদ চার লাখ ৬০ হাজার টাকা ও ছয়-সাত ভরি স্বর্ণালংকার নিয়ে যান।

বাদীপক্ষের আইনজীবী রফিকুল ইসলাম বলেন, রাজবাড়ীর ২ নম্বর আমলি আদালতে করা মামলায় ১ নম্বর আসামি নিজাম হায়দারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা এবং ২ নম্বর আসামির বিরুদ্ধে সমন জারি করেছেন আদালত। রাজবাড়ী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে করা মামলায় আসামি নিজাম হায়দারের বিরুদ্ধে শোকজসহ ভিকটিমের বিরুদ্ধে সার্চ ওয়ারেন্ট জারি করা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে অভিযুক্ত আইনজীবী নিজাম হায়দারের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলে বন্ধ পাওয়া যায়।

রুবেলুর রহমান/এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]