দুর্নীতি-শিক্ষক হয়রানি

মামলা থেকে অব্যাহতি পেলেন শিক্ষা কর্মকর্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৩১ এএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩

ঢাকার কেরানীগঞ্জের সাবেক সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা (এটিইও) ফারজানা শেলীর বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও শিক্ষকদের হয়রানির অভিযোগ ওঠে। ২০২১ সালের ২৪ নভেম্বর এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা হয়। প্রায় দুই বছর তদন্ত শেষে ফারজানার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ ‘সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত’ না হওয়ায় তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রণালয়ের তদন্ত ও শৃঙ্খলা শাখার সিনিয়র সহকারী সচিব মো. ফজলুর রহমানের সই করা আদেশ থেকে এ তথ্য জানা গেছে। সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে এ আদেশের অনুলিপি প্রকাশ করা হয়।

এতে বলা হয়, ফারজানা শেলী কেরানীগঞ্জ উপজেলার ভারপ্রাপ্ত উপজেলা শিক্ষা অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে শিক্ষকদের হয়রানি এবং ইএফটিতে তথ্য অ্যান্ট্রির জন্য শিক্ষকপ্রতি ১০০ টাকা করে আদায় করেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। তারা এমন কাজ সরকারি কর্মচারী বিধিমালা অনুযায়ী-অসদাচরণ ও দুর্নীতির পর্যায়ভুক্ত অপরাধ। এজন্য তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করা হয়। তার কাছে লিখিতও জবাব চাওয়া হয়।

আদেশে আরও বলা হয়, তিনি (ফারজানা) লিখিত জবাব দেন ও ব্যক্তিগত শুনানিতে অংশ নেন। তার জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় বিভাগীয় মামলাটি তদন্তে একজন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। তদন্তে তার বিরুদ্ধে করা অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়নি মর্মে তদন্ত কর্মকর্তা মতামত দেন। এজন্য তাকে মামলা থেকে অব্যাহত দেওয়া হয়েছে। তিনি সাভারে সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

এএএইচ/এসএনআর/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।