পদোন্নতিতে অনাগ্রহী শিক্ষকদের গ্রেডেশন তালিকায় রাখার নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:০২ পিএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতি পেতে অনাগ্রহী শিক্ষকদের তথ্য গ্রেডেশন তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করার নির্দেশনা দিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। একই সঙ্গে পিআরএলে যাওয়া শিক্ষকদের তথ্যও গ্রেডেশন তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করবে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মোহাম্মদ কবির উদ্দীনের সই করা আদেশে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এতে বলা হয়েছে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক থেকে প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতির গ্রেডেশন তালিকার মন্তব্য কলামে পিআরএলে যাওয়াদের তথ্য ও পদোন্নতি গ্রহণে অনাগ্রহী শিক্ষকের তথ্য সংযুক্ত করার জন্য বলা হলো।

আরও পড়ুন: কাটলো জটিলতা, অক্টোবরেই প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা

জানা গেছে, সরকারি চাকরিজীবনের শেষ বেলায় প্রধান শিক্ষক পদের প্রশাসনিক দায়িত্বকে ঝামেলাপূর্ণ বলে মনে করছেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষকদের অনেকেই। প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতিতে তাদের বেতনও বাড়বে না। প্রতিষ্ঠান প্রধানের চলতি দায়িত্বে থাকা সহকারী শিক্ষকদের বাড়তি দেড় হাজার টাকা ভাতাও মিলবে না পদোন্নতিতে। তাই বহু সহকারী শিক্ষক প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতি পেতে চাইছেন না।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রতিটি উপজেলা থেকে ১০-২০ জন সহকারী শিক্ষক পদোন্নতি পেতে অনিচ্ছুক। তারা উপজেলা শিক্ষা অফিসে আবেদনও করেছেন। সেই হিসাবে দেশের কয়েক হাজার সহকারী শিক্ষক পদোন্নতি পেতে অনীহা দেখাচ্ছেন।

আরও পড়ুন: শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে থামছে না বুলিং, ‘শিকেয় তোলা’ নীতিমালা

তবে সাড়ে চার লাখ প্রাথমিক শিক্ষকের অনেকেই পদোন্নতি চাইছেন। তারা বলছেন, চাকরিজীবনে একদিনের জন্য হলেও তারা প্রধান শিক্ষক হতে চান। এমন পরিস্থিতিতে পদোন্নতিতে অনাগ্রহী শিক্ষকদের তথ্য গ্রেডেশন তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করতে নির্দেশ দিলো প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এএএইচ/কেএসআর/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।