অর্থপাচার: লেকহেড গ্রামার স্কুলের মতিনকে জামিন দেননি হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪০ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০২১

অর্থপাচারের অভিযোগে করা মামলায় লেকহেড গ্রামার স্কুলের গ্রামার স্কুলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. খালেদ হাসান মতিনকে জামিন দেননি হাইকোর্ট। তবে তাকে কেন জামিন দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত। আগামী ১০ দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্টদের এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে আজ আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. রুহুল কুদ্দুস কাজল। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল আন্না খানম কলি ও মো সাইফুর রহমান সিদ্দিকী সাইফ।

মামলার এজাহার মতে, ২০১৭ সালের ১৭ মার্চ সালে খালেদ হাসান মতিন লেকহেড গ্রামার স্কুলের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে ২০২০ সালের আগস্ট পর্যন্ত তিনি স্কুলের আয়-ব্যয়ের কোনো সঠিক হিসাব দিতে পারেননি এবং আয়করের নথি ও অডিট রিপোর্ট প্রদর্শন করতে পারেননি। এমনকি তিনি এ বিষয়ে সন্তোষজনক কোনো তথ্যও দিতে পারেননি।

মামলার এজাহারে আরও বলা হয়, খালেদ হাসান মতিন স্কুলটির আয়ের ৩ কোটি ২০ লাখ ৫০ হাজার টাকা বিভিন্ন অ্যাকাউন্টে মাধ্যমে স্থানান্তরের মাধ্যমে মানি লন্ডারিং অপরাধ করায় পুলিশ পরিদর্শক মো. মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে গুলশান থানায় ২০২০ সালের ২ নভেম্বর মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় বর্তমানে তিনি কারাগারে রয়েছেন।

এদিকে, খালেদ হাসান মতিন এখনো লেকহেড গ্রামার স্কুলের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পদে রয়েছেন বলে মামলার তদন্ত কর্মকর্তার বরাত দিয়ে আইনজীবী এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক জানিয়েছেন।

এফএইচ/এমআরআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]