কঠোর নিরাপত্তা, আদালতে প্রবেশে কড়াকড়ি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৩৯ এএম, ২৭ নভেম্বর ২০১৯ | আপডেট: ১১:০৮ এএম, ২৭ নভেম্বর ২০১৯

গুলশানে হলি আর্টিসান বেকারিতে জঙ্গি হামলা মামলার রায়কে কেন্দ্র করে আদালত চত্বর ও এর আশপাশে এলাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

র‌্যাব, পুলিশ ও সাদা পোশাকের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা পুরো এলাকা নজরদারিতে রেখেছেন।

police

পুলিশ-র‌্যাবের সমন্বয়ে রাজধানীতে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পুরান ঢাকার বেশ কয়েকটি রোডে পথচারি চলাচল সীমিত করা হয়েছে। একইসঙ্গে আদালতে প্রবেশদ্বারে বসানো হয়েছে র‌্যাব ও পুলিশের নিরাপত্তা চৌকি। এছাড়া দেহতল্লাশি করা হচ্ছে।

বুধবার সকাল থেকেই পুরান ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় এ চিত্র দেখা গেছে।

police

পুলিশ জানায়, সব ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে মাঠে কাজ করছে তারা। পুরো এলাকায় নিরাপত্তা বলয় করেছে। রায়কে কেন্দ্র করে কেউ যাতে ন্যূনতম বিশৃঙ্খলা করতে না পারে সেজন্য এত আয়োজন।

২০১৬ সালের ১ জুলাই রাজধানীর গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে নৃশংস হামলা চালায় জঙ্গিরা। ওই দিন রাত পৌনে ৯টার দিকে সশস্ত্র পাঁচ জঙ্গি বেকারিতে ঢুকে নির্বিচারে গুলি করে ২২ জন দেশি-বিদেশি নাগরিককে হত্যা করে যার মধ্যে ৯ জন ইতালিয়ান, সাত জন জাপানি, এক জন ভারতীয় নাগরিক। জঙ্গিদের দমনে অভিযান চালাতে গিয়ে নিহত হন পুলিশের দুই কর্মকর্তা। জঙ্গিরা বেকারিতে যাওয়া অতিথিদের রাতভর জিম্মি করে রাখে। পরদিন সকালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তায় সেনাবাহিনী কমান্ডো অভিযান- অপারেশন থান্ডারবোল্ট পরিচালনা করে তাদের জিম্মিদশা থেকে মুক্তি করে। অভিযানে পাঁচ জঙ্গি ও একজন বেকারি শেফ নিহত হন। এছাড়া চিকিৎসাধীন অবস্থায় নিহত হন আরও একজন বেকারিকর্মী।

police

গত ১৭ নভেম্বর ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবর রহমান রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে আজ রায়ের দিন ধার্য করেন। নৃশংস ওই হামলায় নিহতদের স্বজনরা চান, দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক জড়িতদের, যেন এমন ঘটনা আর কখনও না ঘটে। জঙ্গিবাদ দমনের স্মারক হয়ে উঠুক এই রায়। এতে প্রতিফলিত হোক ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর প্রত্যাশা।

police

চার্জশিটভুক্ত ৮ আসামি হলেন- নব্য জেএমবির শীর্ষ নেতা জাহাঙ্গীর হোসেন ওরফে জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধী, মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান, রাকিবুল হাসান রিগ্যান, আসলাম হোসেন ওরফে রাশেদুল ইসলাম রাশেদ, হাদিসুর রহমান সাগর, শরিফুল ইসলাম খালেদ, মামুনুর রশিদ রিপন ও আবদুস সবুর খান ওরফে সোহেল মাহফুজ ওরফে হাতকাটা সোহেল। গত বছরের ২৬ নভেম্বর অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে ৮ জঙ্গির বিচার কাজ শুরু হয়।

police

তবে ওই জঙ্গি হামলার মূল হত্যাকারীদের বেশিরভাগই নিহত হয়েছে, এখন যারা আসামি তারা পরিকল্পনাকারী বা সহযোগী বলে জানা গেছে।

হলি আর্টিসান মামলার রায়ের সব খবর পড়ুন এক ক্লিকে

এসআই/জেএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]