কেরানীগঞ্জে ঘর থেকে গৃহবধূর হাত-পা বাঁধা গলাকাটা লাশ উদ্ধার

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৩০ পিএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলায় নিজ বসতঘর থেকে এক গৃহবধূর হাত-পা বাঁধা গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার নাম ফাতেমা আক্তার বাবলী (৩০)।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার আঁটি পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) মো. দিদার হোসেন জানান, উপজেলার জিয়ানগর এলাকার নিজ বসতঘরের মেঝে থেকে ওই গৃহবধূর হাত-পা বাঁধা গলাকাটা লাশ রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহত ফাতেমা আক্তার বাবলী ওই গ্রামের আব্দুল সামাদের স্ত্রী। তার স্বামী কেরানীগঞ্জের খোলামোড়া বাজারে ডিমের ব্যবসা করেন। রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর থানার চর আলীনগর এলাকার মো. বাবুলের বড় মেয়ে ফাতেমা। তাদের ১২ বছর বয়সী এক ছেলে সন্তান রয়েছে। সে বাড়ির পার্শ্ববর্তী একটি মাদরাসায় থেকে লেখাপড়া করে।

নিহতের স্বজনরা জানান, ১৫ বছর আগে কেরানীগঞ্জের জিয়ানগর এলাকার মৃত মো. শওকত আলীর ছেলে সামাদের সঙ্গে পারিবারিকভাবে ফাতেমার বিয়ে হয়। এরপর থেকেই তারা জিয়ানগর এলাকায় নিজ বাড়িতে বসবাস করতেন। হঠাৎ গতকাল রাতে ফাতেমার স্বামী বাড়ি ফিরে স্ত্রীর গলাকাটা মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার দিলে এলাকাবাসী জড়ো হয়ে বিষয়টি থানা পুলিশকে জানায়।

নিহতের স্বামী আব্দুল সামাদ বলেন, শনিবার সকালে আমার স্ত্রীকে বাসায় একা রেখে আমি ব্যবসার কাজে খোলামোড়া বাজারে যাই। বাসায় ফেরার আগে অনেকবার ফোন দিয়েও তার সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করতে পারিনি। এরপর রাত ১টার দিকে বাসায় ফিরে দেখি আমার স্ত্রীর গলাকাটা লাশ ঘরের মেঝেতে পড়ে আছে। আমি আমার স্ত্রী হত্যার বিচার চাই।

এসআই দিদার জানান, সংবাদ পেয়ে নিহত ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ (মিটফোর্ড) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন বলে এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি কাজী মাঈনুল ইসলাম জানান, হত্যার ঘটনাটি রহস্যজনক।

তিনি বলেন, হত্যার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ ইতোমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে। আশা করছি সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দ্রুত হত্যাকারীকে শনাক্ত করে গ্রেফতার করা সম্ভব হবে। 

আসাদুজ্জামান সুমন, ঢাকা দক্ষিণ/এফআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]