নতুন কপিরাইট আইন মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের অপেক্ষায়: প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৮ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০২১

নতুন কপিরাইট আইন মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। তিনি বলেন, নতুন আইনে কপিরাইটের আওতা, প্রণেতার আর্থিক অর্জন সুসংহতকরণ ও এ বিষয়ে বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জনের ক্ষেত্রে বাস্তবসম্মত উদ্যোগের নিশ্চয়তা বিধান করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আর্কাইভস ও গ্রন্থাগার অধিদপ্তরের জাতীয় গ্রন্থাগার মিলনায়তনে কপিরাইট অফিস আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন। কণ্ঠশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর কপিরাইট রেজিস্ট্রেশন করা গানের অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে অর্জিত অর্থের রয়্যালটি হস্তান্তর উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী বলেন, মেধাস্বত্ব সংরক্ষণের মাধ্যমে শিল্পীদের অধিকার সুরক্ষায় বর্তমান সরকার বদ্ধপরিকর। যার অংশ হিসেবে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আওতাভুক্ত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ কপিরাইট অফিস নন্দিত ও জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর সৃষ্টিকর্মকে সংরক্ষণের পাশাপাশি এর বাণিজ্যিক ব্যবহার হতে রয়্যালটি আদায় নিশ্চিত করেছে।

jagonews24

তিনি বলেন, কপিরাইট নিশ্চিতকরণ ও মেধাস্বত্ব সংরক্ষণের লক্ষ্যে এটি এক অসাধারণ অর্জন। মাত্র এক বছরেরও কম সময়ের মধ্যে কোনো শিল্পী ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে প্রায় পাঁচ হাজার ডলার উপার্জন করতে পারেন এবং টেলিফোন কোম্পানির মাধ্যমে পাঁচ লাখ টাকা আয় করতে পারেন- এ উদ্যোগের মাধ্যমে সেটি প্রমাণিত হয়েছে।

শিল্পীদের কল্যাণে গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে কে এম খালিদ বলেন, কোভিডকালীন প্রায় ২০ হাজার শিল্পীকে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে অনুদান দেওয়া হয়েছে। তাছাড়া প্রান্তিক শিল্পীদের আর্থিক সুরক্ষায় সংগীত বিমা চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

আর্থিক পরিমাণ বিবেচনায় এটি কম হতে পারে, কিন্তু এর মাধ্যমে সরকারের পক্ষ থেকে শিল্পীদের এক ধরনের স্বীকৃতি প্রদান করা হয়েছে, যা অর্থ দিয়ে পরিমাপ করা সম্ভব নয়- বলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী।

রেজিস্ট্রার অব কপিরাইটস জাফর রাজা চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও বাংলাদেশ কপিরাইট বোর্ডের চেয়ারম্যান সাবিহা পারভীন। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন আর্কাইভস ও গ্রন্থাগার অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ফরিদ আহমদ ভূঁইয়া, আইয়ুব বাচ্চুর স্ত্রী ফেরদৌস আক্তার ও এলআরবি ব্যান্ডের সদস্য আবদুল্লাহ আল মাসুদ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনাসহ সূচনা বক্তব্য দেন বাংলাদেশ কপিরাইট অফিসের ডেপুটি রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ রায়হানুল হারুন।

আরএমএম/কেএসআর/ইএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]