শুধু জুয়াড়ি নয়, ক্যাসিনোর মূলহোতাদেরও গ্রেফতার করুন : ফারুক

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৪১ পিএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

মূলহোতাদের বাদ দিয়ে শুধু জুয়াড়িদের গ্রেফতার আইওয়াশ কি না তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক বলেছেন, আমার সন্দেহ হচ্ছে বাংলাদেশের মানুষ যখন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য এক পায়ে দাঁড়িয়ে আছে, এই অবৈধ সরকারের বিরুদ্ধে লড়ার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছে তখনই জনগণের চোখ ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য এটা আইওয়াশ কি না?

সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অপরাজেয় বাংলাদেশের উদ্যোগে কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে সকল মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

জয়নুল আবদিন ফারুক বলেন, গত কয়েক দিনে আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের মধ্য দিয়ে আবারও প্রমাণিত হলো মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সভা-সমাবেশে যে কথাগুলো বলা শুরু করেছেন তা সঠিক। কারণ বাংলাদেশে টাকা নেই, বাংলাদেশের ব্যাংকগুলো খালি, বাংলাদেশের দুরবস্থা, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য এত বেড়েছে যে পেঁয়াজের কেজি ১০০ টাকা। মানুষ গ্যাসের, বিদ্যুতের বিল দিতে পারে না।

তিনি বলেন, শুধু জুয়াড়িদের গ্রেফতার করে এর থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যাবে না। যারা ক্যাসিনো তৈরি করেছে, যাদের মাথার উপর দিয়ে ১০০ গজ দূরে ক্যাসিনো চালানো হয়েছে; তাদের বিরুদ্ধে শুধু অভিযোগ ও অভিযান চালালে হবে না। যারা এইসব রাজ্য পরিচালনা করেছে, তৈরি করেছে তাদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন নিতে হবে। তাই ব্রেনস্ট্রোকের চিকিৎসা না করে শুধু আঙুলের পচনের চিকিৎসা করলে এই সমস্যার সমাধান হবে না।

তিনি আরও বলেন, নিঃসন্দেহে দেশ একটি ভয়াবহতার মধ্য দিয়ে অতিবাহিত করছে। গত কয়েকদিন যাবত সকল মিডিয়ায় প্রকাশিত সংবাদ আর তা দেখে দেশের মানুষ ও বিশ্বের মানুষ হতবাক।

তিনি বলেন, গতকাল ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মিছিল হয়েছে, এই অবস্থা যদি থাকে তাহলে কিছুটা আশার আলো দেখতে পাচ্ছি। আশা করছি ছাত্রদল তাদের গতি নিয়ে এগিয়ে যাক।

সাবেক বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ বলেন, যারা জুয়াড়ি তারা তো ধ্বংস হয়ে গেছে শুধু তাদেরকে গ্রেফতার করলে হবে না। যারা মূলহোতা তাদেরকে গ্রেফতার করতে হবে। যারা এই সাম্রাজ্য তৈরি করেছে তাদের দুই-তিনজনকে যদি গ্রেফতার করতে পারতেন তাহলে আমরা বিশ্বাস করতাম এই অভিযান সফল হবে।

সংসদ ভেঙে দিয়ে আলোচনার মাধ্যমে নতুন নির্বাচনের দাবিও করেন তিনি।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ভিপি ইব্রাহিমের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন- মুক্তিযোদ্ধা ফরিদ উদ্দিন, কৃষকদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য লায়ন মোহাম্মদ আনোয়ার, কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন, ইসমাইল হোসেন সিরাজী প্রমুখ।

কেএইচ/বিএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]