বার্সা কোচের মুন্ডুপাত করলেন গ্রিজম্যানের বাবা-ভাই

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৩৪ পিএম, ০২ জুলাই ২০২০

অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে থাকতে ছিলেন, দলের প্রধান খেলোয়াড়। বার্সেলোনায় আসার পর এখন হয়ে গেলেন পুরোপুরি ব্রাত্য। সেরা একাদশে জায়গা পাওয়াটাই এখন দায় হয়ে পড়েছে আন্তোনিও গ্রিজম্যানের জন্য। অথচ, তার পায়েই লা লিগা জিতেছিল অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। দু’বার উঠেছিল চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে। সর্বোপরি, ২০১৮ সালে ফ্রান্সকে বিশ্বকাপ জেতানোর পথে রেখেছিলেন গুরুত্বপূর্ণ অবদান।

অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে বার্সার ম্যাচ। অ্যাটলেটিকোর সাবেক খেলোয়াড় হিসেবে কোথায় গ্রিজম্যানের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাবেন বার্সা কোচ সিসে সেতিয়েন। তা না, উল্টো একাদশের বাইরেই বসিয়ে রাখলেন তিনি গ্রিজম্যানকে।

বসিয়ে রাখলেই ভালো হতো। কিন্তু গ্রিজম্যানকে তিনি মাঠে নামিয়েছেন। ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজার ঠিক আগ মুহূর্তে, ৯০ মিনিটের সময়। ইনজুরি হিসেবে যোগ করা মাত্র ৪ মিনিট খেলার সুযোগ পেয়েছেন তিনি।

ম্যাচটিতে শেষ পর্যন্ত ২-২ গোলে ড্র করেছে বার্সা। দিয়েগো কস্তা যদি আত্মঘাতি গোলটি না করতেন, তাহলে তো হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হতো বার্সেলোনাকে। সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে ম্যাচে সিসে সেতিয়েন মাত্র ৯ মিনিট সুযোগ দিয়েছিলেন গ্রিজম্যানকে।

আন্তোনিও গ্রিজম্যানের প্রতি অবিচার করা হয়েছে বলে বার্সা কোচ সিসে সেতিয়েনের মুন্ডুপাত করলো তার পরিবার। অ্যাটলেটিকো ম্যাচের পর গ্রিজম্যানের ভাই থিও তো শুরুতে অনেকটা আবেগিই হয়ে পড়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেখানে প্রথমে তিনি লেখেন, ‘মাত্র দুই মিনিট...।’ পরের পোস্টে লেখেন, ‘সত্যিই আমার কাঁদতে ইচ্ছে করছে।’

অ্যাটলেটিকোর বিপক্ষে ম্যাচের পর সেতিয়েন বলে দিয়েছেন, গ্রিজম্যানের কাছে দুঃখ প্রকাশ করা তিনি প্রয়োজন মনে করছেন না। গ্রিজম্যানের বাবা অ্যালেইন ইনস্টাগ্রামে সেতিয়েনকে কটাক্ষ করে লিখেন, ‘প্রথমে তার প্রয়োজন দুঃখ প্রকাশ করা। সে তো (সিসে) কোনো লরির চাবি নয়, সে হচ্ছেন স্রেফ একজন প্যাসেঞ্জার।’

তবে, গ্রিজম্যানের ভাই এবং বাবা দু’জনই ইনস্টাগ্রামে মেসেজ পোস্ট করার কিছুক্ষণ পরই ডিলিট করে দেন।

আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]