তখন কী কথা বলছিলেন মেসি-নেইমার?

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৫২ এএম, ১২ জুলাই ২০২১

উরুগুইয়ান রেফারি এস্তেবান ওস্তোজিচের শেষ বাঁশি বাজার পর কান্নায় ভেঙে পড়েন লিওনেল মেসি ও নেইমার জুনিয়র। প্রথমজনের কান্না দীর্ঘ ২৮ বছর পর শিরোপা জেতার আনন্দে। আর পরেরজন (নেইমার) তখন ঘরের মাঠে ফাইনাল হারের বেদনায় নিমজ্জিত।

সতীর্থদের সঙ্গে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার প্রাথমিক উদযাপন শেষ করেই মেসি এগিয়ে যান তার একসময়কার বার্সেলোনা সতীর্থ ও ব্যক্তিগত সম্পর্কে ঘনিষ্ঠ বন্ধু নেইমারের উদ্দেশ্যে। ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টারও তখন প্রাথমিক ধাক্কা সয়ে কান্না থামানোর অবস্থায় ছিলেন।

মাঠের মধ্যেই হাত মিলিয়ে আলিঙ্গন করেন মেসি ও নেইমার। প্রায় এক মিনিট ধরে একে অপরকে ঝাপটে ধরে রাখেন দুই দলের এ দুই মহাতারকা। তাদের এই ভাতৃত্বপূর্ণ ঘটনা ছবি, ভিডিও মুহূর্তের মধ্যেই ছড়িয়ে পড়ে ইন্টারনেটে। যা ব্যাপক আলোড়ন তোলে নেটিজেনদের মধ্যে।

কিন্তু সেই এক মিনিট ধরে আলিঙ্গন করে রাখার সময় মেসিকে কী বলছিলেন নেইমার? তাদের মধ্যে কী বিষয়ে কথা হচ্ছিল? এর উত্তর মিলেছে নেইমারের ইন্সটাগ্রাম প্রোফাইল থেকে। তখনকার ভিডিও আপলোড করে দীর্ঘ এক বার্তা দিয়েছেন নেইমার।

তিনি লিখেছেন, ‘পরাজয় সবসময় আমাকে কষ্ট দেয়। এটা এমন একটা বিষয় যার সঙ্গে মানিয়ে নেয়া এখনও শিখিনি আমি। গতকাল আমি যখন হারলাম, তখন আমি আমার দেখা ইতিহাসের সবচেয়ে ও সেরা খেলোয়াড়কে আলিঙ্গন করতে চাই।’

jagonews24

‘সে আমার ভাই এবং বন্ধু, মেসি। আমার মন খারাপ ছিল। আমি তাকে মজা করে বললাম, তুমি তো আমাকে হারিয়ে দিলে। হেরে যাওয়ায় আমি হতাশ। তবে এই মানুষটা (মেসি) দুর্দান্ত।’

‘ফুটবলের জন্য এবং বিশেষ করে আমার জন্য যা যা করেছে, তার প্রতি আমার অনেক সম্মান ও শ্রদ্ধা রয়েছে।’

‘আমি হারতে অপছন্দ করি। তবে তুমি (মেসি) তোমার শিরোপা উদযাপন করো। ফুটবল তোমার জন্য, এ সময়টার জন্য অপেক্ষা ছিল। অনেক অভিনন্দন ভাই (মেসি)।’

এর খানিক পরে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়ারত অবস্থার ছবি আপলোড করে নেইমার লিখেছেন, ‘ধন্যবাদ ঈশ্বর। আমাকে এই অনুভূতিটা দেয়ায় তোমাকে ধন্যবাদ। আমাকে আরও একবার এই জার্সি পরার স্বপ্ন সম্পর্কে অনুধাবন করানোয় তোমাকে ধন্যবাদ। সবকিছুর জন্য তোমাকে ধন্যবাদ। ঈশ্বর, তোমাকে ভালোবাসি। ব্রাজিল, তোমাকে ভালোবাসি।’

এসএএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]