দুর্ঘটনায় বেঁচে যাওয়া টাইগার উডসের পায়ে ‘স্ক্রু ও পিন’ লাগাতে হবে

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৫১ পিএম, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১

যেমন দুর্ঘটনায় পড়েছিলেন, বেঁচে থাকাটাই বড় সৌভাগ্য টাইগার উডসের। আমেরিকার কিংবদন্তি এই গলফার কপালগুণে বেঁচে গেলেও বড় ধরনের আঘাত পেয়েছেন পায়ে। তাই উন্নত চিকিৎসার জন্য তার হাসপাতাল বদলানো হয়েছে।

১৫ বারের মেজর গলফ চ্যাম্পিয়ন টাইগার উডসের বর্তমান ঠিকানা লস অ্যাঞ্জেলসের একটি বেসরকারি হাসপাতাল। ডাক্তার জানিয়েছেন, টাইগারের শারীরিক অবস্থা আগের চেয়ে কিছুটা ভালো। তবে পুরোপুরি সুস্থ হতে আরও সময় লাগবে।

পায়ে অস্ত্রোপচার করা হলেও ৪৫ বছর বয়সী এই গলফারের ডান পায়ের নিচের অংশে ও গোড়ালিতে অনেক জায়গায় চোট আছে। সেটা নিয়ে বেশ উদ্বিগ্ন টাইগারের পরিবার ও তার চিকিৎসক ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকান ডাক্তার অনীশ মহাজন। তাই এবার এই গলফারকে অন্য হাসপাতালে ভর্তি করানো হলো।

এই বিষয়ে ডাক্তার অনীশ মহাজন বলেছেন, ‘টাইগার আগের থেকে অনেকটা ভালো হলেও পুরোপুরি সুস্থ হতে আরও সময় লাগবে। পায়ের পাতা ও গোড়ালিতেও বেশ গুরুতর জখম রয়েছে। তাই এই দুই জায়গায় কিছু স্ক্রু ও পিন লাগানো হবে। সেজন্য অন্য হাসপাতালে তাকে স্থানান্তরিত করা হলো। তাকে দ্রুত সুস্থ করে তোলা আমাদের দায়িত্ব।’

গত মঙ্গলবার লস অ্যাঞ্জেলসের রোলিং হিলস এস্টেট ও র্যাঞ্চো পালোসা ভার্দাস সীমান্তে গাড়ি দুর্ঘটনার কবলে পড়েন উডস। তার গাড়িটি রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় বাঁক নেয়ার মুখে আচমকা ঘুরে যায়। কয়েকটি পাক খেয়ে সেটি পড়ে যায় খাদে।

ঘটনাস্থলে উদ্ধারকর্মীরা পৌঁছার পরেও আশা করেননি যে ভেতর থেকে জীবিত কাউকে বের করতে পারবেন। তবে পুরোপুরি কপাল জোরেই বেঁচে গেছেন টাইগার উডস। প্রাণে বাঁচলেও পায়ের দুই জায়গায় ভেঙে গেছে তার। এছাড়া গোড়ালিও অনেক বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এমএমআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]