মাভাবিপ্রবির ছাত্রীদের নানা অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি টাঙ্গাইল
প্রকাশিত: ০৮:১৯ পিএম, ০৯ জানুয়ারি ২০১৮

মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (মাভাবিপ্রবি) আবাসন ব্যবস্থা অপ্রতুল হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে মেস বা ছাত্রীনিবাসে প্রায় ৫০ শতাংশ ছাত্র-ছাত্রী অবস্থান করে। এর মধ্যে রয়েছে টাঙ্গাইল পৌর এলাকার সন্তোষ বাগবাড়ি এলাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ম গেট সংলগ্ন ৫তলা বিশিষ্ট দুলাল মিয়ার মালিকাধীন ছাত্রীনিবাস আশায় অবস্থান করে প্রায় শতাধিক ছাত্রী।

মঙ্গলবার দুপুরে নানা অনিয়মের অভিযোগ তুলে ওই ছাত্রীনিবাসের ২৫ জন ছাত্রী একটি লিখিত অভিযোগ প্রক্টর অফিসে জমা দিয়েছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ছাত্রীনিবাসে জামানত বাবদ নেয়া টাকা ও আসবাবপত্র ফেরত না দেয়া। নতুন ছাত্রী আসলে অতিরিক্ত ভাড়ার আসায় পুরাতনদের নোটিশ দিয়ে বের করে দেয়া। গুণগতমানের খাবার পরিবেশন না করা। খাবার না খেলেও খাবারের টাকা নেয়া। দূর-দূরান্ত থেকে বাবা-মা দেখা করতে আসলে তাদের সঙ্গে অমানবিক আচরণ করা। পড়ালেখার জন্য বান্ধবীরা দেখা করতে আসলে রুম পর্যন্ত যেতে না দেয়া। একবার ছাত্রীনিবাসে উঠলে সেখান থেকে অন্য কোথাও না যাওয়া। ছাত্রীদের সঙ্গে খারাপ ভাষায় কথা বলা।

এ বিষয়ে ছাত্রীনিবাসের মালিক দুলাল মিয়া বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত সব অভিযোগ মিথ্যা। বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ছুটির প্রতিদিন খাবার বাবদ ৬০ টাকা ফেরত দেই।

এ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, আমি অভিযোগপত্রটি হাতে পেয়েছি। মালিকপক্ষ ও ছাত্রীদের সঙ্গে কথা বলেই এ সমস্যার সমাধান করা হবে।

আরিফ উর রহমান টগর/আরএআর/আইআই

আপনার মতামত লিখুন :