রাজবাড়ীতে বেড়েছে বোরো আবাদ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি রাজবাড়ী
প্রকাশিত: ০৩:১৯ পিএম, ১৪ মার্চ ২০১৮

গেল বছর বোরো চাষে ফলন ও দাম ভালো পাওয়ায় এবং চলতি মৌসুমে আবহাওয়া ভালো হওয়ার কারণে রাজবাড়ীতে বেড়েছে বোরো ধানের আবাদ। দেশের প্রায় ৮০ ভাগ খাদ্যের ঘাটতি পূরণ হয়ে থাকে দেশে উৎপাদিত এসব খাদ্যপণ্য থেকে। খাদ্য উৎপাদনে দিনরাত পরিশ্রমের পাশাপশি এ বোরো ধান চাষে আগ্রহী হচ্ছেন কৃষকরা।

প্রাচীন পদ্ধতি ও নিজেদের মেধা খাটিয়ে কৃষকরা এ ফসল উৎপাদন করছেন। বাজারে ধানের দাম ভালো হওয়ায় গেল বছরের তুলনায় এ মৌসুমে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে প্রায় ২ হাজার হেক্টর বেশি জমিতে বোরোর আবাদ হয়েছে।

RAJBARI2

কৃষকরা জানান, গত বছর ধানের দাম ভালো পাওয়ায় এ বছরও তারা বোরো ধানের আবাদ করেছেন। সার, বীজ, কীটনাশক, সেচ, দিনমজুরসহ যে খরচ হয় সে তুলনায় দাম ভালো পেয়েছিলেন তারা। তবে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের কর্মকর্তাদের পরামর্শ ও সহযোগিতা পেলে ধানের উৎপাদন আরও বৃদ্ধি পেত। গত বছরের মতো এ বছরও ধানের দাম ভালো পাবেন এই আশায় বুক বেঁধেছেন কৃষকরা।

প্রতিবিঘা জমিতে সব মিলিয়ে তাদের খরচ হয় ৫ থেকে ৭ হাজার টাকা। আর বিঘা প্রতি জমিতে ফলন পেয়ে থাকেন ২০ থেকে ২২ মণ এবং যার প্রতিবিঘা জমি থেকে প্রায় ১৮ থেকে ২০ হাজার টাকার ধান বিক্রি করেন বলে জানা তারা।

RAJBARI2

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফর সূত্র জানায়, চলতি মৌসুমে রাজবাড়ীতে বোরো ধান আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১২ হাজার ১৮৮ হেক্টর জমিতে। কিন্তু আবাদ হয়েছে প্রায় ১৪ হাজার হেক্টরের বেশি জমিতে। এ বছর ব্রি ধান-২৮, ব্রি -২৯, ব্রি -৫০, ব্রি -৫৮ জাতের বোর ধানের আবাদ হয়েছে। জেলায় বোরো ধান আবাদে প্রায় ৮০ হাজার কৃষক নিয়োজিত রয়েছে।

রাজবাড়ী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক মো. ফজলুল হক জানান, গেল বছরের তুলনায় এ বছর রাজবাড়ীতে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে প্রায় ২ হাজার হেক্টর বেশি জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে। গত বছর দাম ভালো পাওয়া ও বর্তমানে আবহাওয়া ভালো হওয়ায় কৃষকরা বেরো ধান চাষে আগ্রহী হচ্ছেন।

রুবেলুর রহমান/এফএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :