রাজবাড়ীতে ১০ টাকার চাল ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজবাড়ী
প্রকাশিত: ০৯:৩০ এএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

রাজবাড়ীতে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির অধীনে দরিদ্রদের মধ্যে ১০ টাকা কেজি দরে বরাদ্দকৃত চাল ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। খাদ্য গুদাম থেকে ওজনে চাল কম দেয়ায় কার্ডধারীরাও চাল কম পাচ্ছে বলে জানায় ডিলাররা।

চাল বিতরণ কর্মসূচির দ্বিতীয় পর্বের প্রথম পর্যায়ে রাজবাড়ী সদর উপজেলায় চাল বিতরণে এ অনিয়ম পাওয়া যায়। প্রতি কার্ডে ৩০ কেজি করে চাল পাওয়ার কথা থাকলেও কম পাচ্ছেন বলে জানান ভুক্তভোগীরা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রতিটি চালের বস্তার গায়ে লেখা আছে নেট ওজন ৫০ কেজি। কিন্তু সেই বস্তা ডিলারদের স্কেলে ওজনের পর হয়ে যায় ৪৯ কেজি ৭শ থেকে ৮শ গ্রাম। গুদামের ওজন অনুযায়ী প্রতিটি বস্তায় নাই ৬শ থেকে ৭শ গ্রাম চাল। ফলে ডিলাররাও ওজনে চাল কম দিচ্ছেন ভুক্তভোগীদের।

পাঁচুরিয়ার ডিলার আব্দুস সালাম মিলন, খানখানাপুরের রতনশীল, মুলঘরের আজিবর রহমান, শহীদ মন্ডল, বসন্তপুরের শাহিন ফকির বলেন, গুদাম থেকে ৫০ কেজির প্রতিটি বস্তার ওজন ৫০ কেজি ২শ থেকে ৪শ গ্রাম পর্যন্ত ওজন দেয় গুদাম কর্মকর্তা। পরে সেই চাল ওজন দিয়ে দেখা যায় প্রতিটি বস্তায় ৫শ থেকে ৭শ গ্রাম কম। তবে হতদরিদ্রদের চাল কম দিচ্ছি না আমরা।

রাজবাড়ীর খাদ্য সরবারাহ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবদুল হক হাওলাদার বলেন, ডিলারদের উপস্থিতিতে ডিজিটাল স্কেলে ওজন দিয়ে চাল বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে দোকানে গিয়ে বস্তায় ওজনে কম হয়েছে বললে তো হবে না। গুদাম থেকে প্রতি ডিলারকে সঠিক ওজনে চাল দেয়া হয়েছে। এবার সদর উপজেলায় ২৯ জন ডিলারকে ৩৮৭ মেট্রিক টন চাল দেয়া হয়। তবে ডিলাররা যদি হতদরিদ্রদের চাল কম দিয়ে থাকেন অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রুবেলুর রহমান/এএম/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :