ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ০১:০৩ এএম, ২২ জানুয়ারি ২০১৯

পূর্ববিরোধের জের ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার এক ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান ও তার সমর্থকদের বিরুদ্ধে এক ব্যক্তির বাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। সদর উপজেলার নাটাই (দক্ষিণ) ইউনিয়নের নরসিংসার গ্রামের বাসিন্দা শামীম উন বাছিরের বাড়িতে রোববার সন্ধ্যা ও সোমবার সকালে দুই দফায় এ ভাঙচুর ও লুটপাট চালানো হয় বলে অভিযোগ করেছেন তার পরিবারের লোকজন।

তবে অভিযুক্ত ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজমুল হক তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি ইউপি চেয়ারম্যানের পাশাপাশি ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি।

সোমবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বাছিরের বাড়ির সীমানা প্রাচীর ভেঙে ফেলা হয়েছে। পাশাপাশি ঘরের টিনের বেড়া ভাঙচুর করে জিনিসপত্র লুটপাট করা হয়েছে।

বাছিরের ছোটবোন তাহমিনা আম্বিয়া জ্যোতি বলেন, এলাকার একটি স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি নিয়ে চেয়ারম্যান নাজমুলের সাথে আমার ভাইয়ের বিরোধ ছিল। এরপর গতকাল আমাদের শহরের মৌলভীপাড়ার বাসার সামনে ভাইয়ের সাথে চেয়ারম্যানের বাগবিতণ্ডা হয়েছে। এসব নিয়ে চেয়ারম্যান ও তার লোকজন আমাদের বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়েছে।

nb

বাছিরে খালাত ভাই কামাল উদ্দিন বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হকের সাথে বাছিরের নানা বিষয় নিয়ে বিরোধ চলছে। এসবের জের ধরে চেয়ারম্যান ও তার সমর্থকরা বাছিরের বাড়িতে ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। ঘটনার পর চেয়ারম্যানের সমর্থকরা নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হক সাংবাদিকদের বলেন, রোববার সন্ধ্যায় বাছির আমাকে তার বাড়ির সামনে লাঞ্ছিত করেছে। আমি এ ঘটনায় রাতেই থানায় মামলা দায়ের করেছি। বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রভাবিত করার জন্য সে নিজেই তার বাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে।

এ ব্যাপারে সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন বলেন, ভাঙচুরের বিষয়টি এলাকার লোকজনের মাধ্যমে শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। তবে এ ঘটনায় থানায় কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আজিজুল সঞ্চয়/বিএ

আপনার মতামত লিখুন :