স্বস্তিতে পদ্মা পাড়ি দিচ্ছেন কর্মস্থলমুখী মানুষ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজবাড়ী
প্রকাশিত: ১১:৫০ এএম, ১৬ আগস্ট ২০১৯
ফাইল ছবি

প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদের আনন্দ উপভোগ করে জীবিকার তাগিদে রাজধানীতে ফিরতে শুরু করেছে মানুষ। তবে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া প্রান্তে কর্মস্থলমুখী মানুষের চাপ থাকলেও নেই গাড়ির বাড়তি চাপ। যানবাহনগুলো সড়কে অপেক্ষা ছাড়াই সরাসরি এসে ফেরিতে উঠছে। লোকাল গাড়ির যাত্রীরাও স্বাচ্ছন্দ্যেই লঞ্চ ও ফেরিতে পার হচ্ছেন। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় এমন চিত্র দেখা গেছে।

প্রতি বছর দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে ঈদের আগে ঘরমুখো ও পরে কর্মস্থলমুখী মানুষ ঘণ্টার পর ঘণ্টা নদী পারের অপেক্ষায় থেকে ভোগান্তি পোহান। কিন্তু এ বছর তার উল্টো চিত্র দেখা গেছে। কোনো রকম যানজট ও ভোগান্তি ছাড়াই ঈদের আগে যানবাহন ও যাত্রীরা নদী পার হয়েছেন।

আজ শুক্রবারও দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে মহাসড়ক পর্যন্ত প্রায় ফাঁকা। তবে সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যানবাহন ও যাত্রীর চাপ বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিএ দৌলতদিয়া ঘাট সূত্রে জানা গেছে, ঢাকামুখী যাত্রীদের চাপ বাড়তে শুরু করেছে। তবে কোনো ভোগান্তি নেই। লঞ্চ ঘাটে এসে যাত্রীরা সরাসরি লঞ্চে উঠে নদী পার হচ্ছে। যাত্রী পারাপারে এ রুটে ৩৪টি লঞ্চ চলাচল করছে।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) আবু আব্দুল্লাহ রনি বলেন, ঈদের ছুটি শেষে কর্মব্যস্ত মানুষ দৌলতদিয়া প্রান্ত দিয়ে রাজধানীতে ফিরতে শুরু করেছে। তবে কোনো চাপ নেই। বর্তমান দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ছোট বড় ১৯টি ফেরি চলাচল করছে। তবে আজ দুপুরের পর থেকে ঘাটে যানবাহনের চাপ বাড়তে পারে বলে ধারণা করছেন।

রুবেলুর রহমান/এফএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :