প্রভাবশালীরা জড়িত তাই পদক্ষেপ নেয় না প্রশাসন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ১০:০৮ পিএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা সদরের মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত ভুবনেশ্বর নদে অর্ধশতাধিক পয়েন্টে বাঁশের বানা দিয়ে তৈরি বাঁধ ও ভেসাল দিয়ে দিনরাত নিধন করা হচ্ছে পোনা মাছ।

গত এক সপ্তাহ যাবৎ পানি বৃদ্ধির ফলে রুই, কাতলা ও মৃগেলের পোনা মাছে উক্ত নদ ছয়লাব হয়ে রয়েছে। আর এ সুযোগে প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় স্থানীয় অসাধু জেলে ও গৃহস্থ পরিবারগুলো নদের বিভিন্ন পয়েন্টে আড়াআড়ি বাঁশের বানা দিয়ে তৈরি বাঁধের মাধ্যমে ফাঁদ জাল ও চাই বসিয়ে নিধন করে চলেছে পোনা মাছ।

এছাড়া আকস্মিক পানি বৃদ্ধির ফলে উক্ত নদের আশপাশের খালবিলসহ বিভিন্ন কোলে রয়েছে আরও অন্তত ১৫টি ভেসাল বাঁধ। এসব ভেসাল বাঁধে রাতের বেলায় অবাধে নিধন করা হচ্ছে পোনা মাছ। প্রশাসন ও মৎস্য বিভাগের সামনেই এ নিধনযজ্ঞ চালানো হলেও কোনো ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না।

জানা যায়, উপজেলা সদর ইউনিয়নের ভুবনেশ্বর নদের লোহার টেক গ্রাম, বাছার ডাঙ্গী গ্রাম, সর্দারবাড়ী গ্রাম, মৌলভীরচর গ্রাম, আঃ করিম মৃধার ডাঙ্গী গ্রামসহ জাকেরের সুরা গ্রাম পর্যন্ত নদ জুড়ে প্রায় অর্ধশত আড়াআড়ি বাঁশের বানা দিয়ে তৈরি বাঁধ রয়েছে। এসব আড়াআড়ি বাঁধের মাঝে মধ্যে পানি সমান করে পোতা হয়েছে ফাঁদ জাল ও বড় আকারের চাই। নদীতে চলমান সমস্ত প্রকার মাছের পোনাগুলো এসব ফাঁদজাল ও চাইয়ের মধ্যে আটকে যাচ্ছে।

faridpur-pic--01

এছাড়া উক্ত নদের সর্দারবাড়ী গ্রাম পয়েন্টে নদ আটকিয়ে একটি ভেসাল ও জাকেরের সুরা গ্রামে রয়েছে আরও দুটি ভেসাল। একই সঙ্গে উপজেলার কামার ডাঙ্গী গ্রামের কোলে আরও দুটি ভেসাল, মাথাভাঙ্গা গ্রামের কোলে একটি, শ্রী মোহনের কোলে একটি, লোহারটেক গ্রামের খালে একটিসহ পোনামাছ চলাচলের জলমহলে অন্তত ১০টি ভেসাল বাঁধ দিয়ে নিধন করা হচ্ছে পোনা মাছ।

উপজেলার জাকেরের সুরা গ্রামের ছবেদ প্রামাণিক জানান, প্রতিটি ভেসাল বা বাঁধের মালিক স্থানীয় প্রভাবশালী। তারা জেলেদের দিয়ে রাতের বেলায় পোনাসহ সমস্ত প্রকার মাছ শিকার করে থাকে। প্রভাবশালীরা জড়িত থাকায় প্রশাসন ব্যবস্থা নেয় না।

এ ব্যাপারে চরভদ্রাসন উপজেলা মৎস্য অফিসার মালিক তানভির হোসেনের সঙ্গে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

চরভদ্রাসন উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী অফিসার ফারজানা নাসরীন জানান, আমি বিষয়টি অবগত ছিলাম না। ভুবনেশ্বর নদের অবৈধ বাঁধগুলো অপসারণের ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বি কে সিকদার সজল/এমএএস/জেআইএম