কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গৃহবধূকে অ্যাসিডে ঝলসে দিল বখাটে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ০৮:৪৮ পিএম, ১৭ নভেম্বর ২০১৯

ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলায় কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক গৃহবধূকে অ্যাসিড দিয়ে ঝলসে দিয়েছে বখাটে। ওই গৃহবধূ বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। এ ঘটনায় রোববার দুপুরে (১৭ নভেম্বর) বখাটে সুজন হালদারকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের জগন্নাথদী গ্রামের বাসিন্দা চৈতন্য মালোর স্ত্রী সরস্বতী মালোকে (২৩) দুই বছর ধরে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল গাজনা ইউনিয়নের বেলেশ্বর গ্রামের সুশীল কুমার হালদারের ছেলে সুজন হালদার।

বিষয়টি নিয়ে এলাকায় একাধিকবার শালিস বৈঠক হয়। শালিসে সুজনকে সতর্ক করে দেয়া হয়। কিন্তু এরপরও গৃহবধূকে উত্ত্যক্ত করতে থাকে সুজন। একপর্যায়ে স্থানীয়রা সুজনকে আবারও সাবধান করে দেয়।

শনিবার (১৬ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ওই গৃহবধূ রান্না করছিল। এ সময় হঠাৎ করে পেছন থেকে গৃহবধূকে অ্যাসিড নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায় সুজন। অ্যাসিডে গৃহবধূর মাথা, মুখ, পিঠ ও হাতসহ শরীরের বিভিন্ন অংশ ঝলসে যায়। গৃহবধূকে দ্রুত ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হয়। রাতেই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই গৃহবধূ বর্তমানে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।

এ ঘটনায় রোববার গৃহবধূর ভাশুর বাদী হয়ে মধুখালী থানায় মামলা করেন। দুপুরে সুজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে সুজনকে আদালতের মাধ্যেমে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

মধুখালী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুর রহমান বলেন, সুজন হালদারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে আদালতের মাধ্যেমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

বি কে সিকদার সজল/এএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]