চাঁদা না দেয়ায় ঘর ভাঙচুরের অভিযোগ বন বিভাগের বিরুদ্ধে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গাজীপুর
প্রকাশিত: ০৭:১৪ পিএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২১

গাজীপুরে রেকর্ডিয় জমিতে ঘর নির্মাণ করার সময় বন বিভাগের লোকজন ওই ঘর ভাঙচুর ও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে সদর উপজেলার ভাওয়ালগড় ইউনিয়নের শিরিরচালা গ্রামে স্থানীয় শাহার বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করে এমন অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরাা।

সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী দিনমজুর শাহা অভিযোগ করে বলেন, গত ১৭ জানুয়ারি তিনি নিজ জমিতে ঘর নির্মাণ করছিলেন। এসময় জমি রেকর্ড থাকা সত্ত্বেও বন বিভাগের লোকজন এসে উপস্থিত হয়। পরে তাদের সব কাজপত্র দেখালেও তারা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদার দাবিকৃত টাকা দিতে না চাইলে তারা ঘর ভাঙচুর করে জমির মালিক শাহাসহ তার স্ত্রীকে মারধর করেন। এ ঘটনার পর উল্টো তার বিরুদ্ধেই থানায় মামলা দায়ের করেছে বন বিভাগ।

পুরো জীবনের সঞ্চয়টুকু দিয়ে তিন মেয়ে ও স্ত্রীকে নিয়ে মাথাগোঁজার ঠাই করতে চেয়েছিলেন দিনমজুর শাহা। এখন অসহায় হয়ে সন্তানদের নিয়ে অন্যের আশ্রয়ে খেয়ে না খেয়ে পুলিশের ভয়ে দিনাতিপাত করছেন। এ বিষয়ে সকারের সহযোগিতা কামনা করেছেন শাহার আলী।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত স্থানীয় কয়েকশ নারী পুরুষ এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। এ ঘটনায় তারাও দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ভবানীপুর বিটের বিট কর্মকর্তা মো. নাজিম উদ্দিন জানান, শাহা যে স্থানে ঘর নির্মাণ করছিলেন সে জমি বন বিভাগের গেজেটভুক্ত। তাই সরকারি জমিতে নিয়ম অনুযায়ী বাধা দেয়া হয়। কিন্তু শাহাসহ স্থানীয়রা বন বিভাগের কর্মকর্তাদের ওপর হামলা চালান। এতে তিনিসহ প্রহরী ইকরামুল হকসহ বেশ কয়েকজন গুরুতর আহত হন।

তিনি আরও জানান, হামলার পর তারা আত্মরক্ষার চেষ্টা করেছেন। পরে ওই দিনই থানায় উপস্থিত হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

আমিনুল ইসলাম/এসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]