আরমান ভাইকে আমিও মিস করি, শিগগিরই চমক দেবো: জাহিদ হাসান

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:১১ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০২২

অভিনেতা, নির্মাতা ও নাট্যকার- তিন পরিচয়েই সফল জাহিদ হাসান। দীর্ঘ অভিনয় ক্যারিয়ারে অসংখ্য জনপ্রিয় কাজ উপহার দিয়ে সবার প্রিয় হয়ে গেছেন তিনি। হুমায়ূন আহমেদ পরিচালিত ‘শ্রাবণ মেঘের দিন’ চলচ্চিত্রে মতি চরিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে অর্জন করেছিলেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।

এখনো কাজ করে যাচ্ছেন নিয়মিতই। নাটক, ওয়েব সিরিজ, সিনেমা- সবখানেই তিনি সরব। জাগো নিউজের জন্য এ অভিনেতার সাম্প্রতিক কাজ ও ভবিষ্যত পরিকল্পনা নিয়ে বিশেষ সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন গুলশান হাবিব রাজীব-

জাগো নিউজ: আরমান ভাইকে দর্শক খুবই মিস করে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এখনো আরমান ভাইকে নিয়ে লেখালেখি চলে দর্শকের। এমন ল্যান্ডমার্ক চরিত্রে আবার কি কখনো দেখা যাবে আপনাকে?
জাহিদ হাসান: আরমান ভাইকে আমিও মিস করি। অসাধারণ একটি চরিত্র এটি। তুমুল জনপ্রিয় ছিল। ভালো কিছুর প্রাপ্তি এটাই। মানুষের মনের ভেতর জায়গা করা খুবই কঠিন। সেটা যারা পারে তারাই সার্থক। পরিচালক সাগর জাহান অনেক যত্ন নিয়ে কষ্ট করে এটি নির্মাণ করেছিলেন। তাকে ধন্যবাদ। বাংলাভিশনকেও ধন্যবাদ আরমান ভাই নাটকটি আগ্রহ নিয়ে কয়েকটি সিক্যুয়াল প্রচার করার জন্য। আসলে অনেক চরিত্র নিয়েই তো কাজ হয়, হচ্ছে। আরমান ভাইয়ের মতো হিট চরিত্র কালেভদ্রেই আসে।

তবুও চেষ্টা করছি দর্শকের সামনে একটি চমক নিয়ে আসতে। খুব শিগগিরই আরমান ভাইয়ের মতো একটি ল্যান্ডমার্ক চরিত্র নিয়ে কাজ শুরু করবো। অনেক চমক থাকছে এতে। এখনই সব কিছু বলতে চাচ্ছি না। সারপ্রাইজ থাকুক।

জাগো নিউজ: দ্বৈত চরিত্রে কাজ করছেন ধারাবাহিক নাটক ‘অদল বদল’-এ। ১৬ জানুয়ারি এর প্রচার শুরু হয়েছে মাছরাঙা টেলিভিশনে। কেমন সাড়া পাচ্ছেন এবং এই নাটকে আপনার অভিজ্ঞতার গল্প শুনবো-
জাহিদ হাসান: মাত্র তো প্রচার শুরু হয়েছে। তবে রেসপন্স খারাপ না। মজার নাটক। দর্শক উপভোগ করছেন।
আর এতে কাজ করে খুবই আনন্দ পেয়েছি। একসঙ্গে দুটি চরিত্র করা। একজন অফিসে বস, বাসায় তাকে স্ত্রী চাপে রাখেন। এ হলো সাদাসিধে স্বভাবের সুমনকে। আর হাসেম শান্ত ভঙ্গিতে গ্রামের মানুষের মধ্যে বড় ধরনের গোলমাল বাধিয়ে দিতে পারে। গ্রামবাসী অতিষ্ঠ হয়ে ঠিক করে তাকে গ্রাম থেকে বের করে দেবে।

কিন্তু চেহারা অবিকল এক বলে দুজনকে নিয়ে তৈরি হয় ঝামেলা। হাস্যরসপূর্ণ বিচিত্র ঘটনাপ্রবাহের মধ্য দিয়ে তারই প্রতিফলন দেখা যাবে এই নাটকে।

jagonews24

জাগো নিউজ: এই ধারাবাহিক নাটকটি প্রযোজনা করেছে আপনার নিজস্ব প্রোডাকশন হাউজ পুষ্পিতা ভিজুয়ালস। এই ব্যানারে ওয়েব সিরিজ তৈরির কোনো পরিকল্পনা আছে কী?
জাহিদ হাসান: আমি নিজে ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছি। তবে নির্মাণ বা প্রযোজনার পরিকল্পনা এখনো করি নি। কেউ যদি প্রস্তাবনা দেয় তাহলে ভেবে দেখবো।

জাগো নিউজ: সাম্প্রতিক ব্যস্ততা কেমন?
জাহিদ হাসান: বর্তমানে ধারাবাহিক ‘অদল বদল’ নিয়েই ব্যস্ত সময় যাচ্ছে। দুটি চরিত্র একসঙ্গে। প্রযোজনাও দেখতে হচ্ছে। চেষ্টা করছি একটি উপভোগ্য নাটক উপহার দেয়ার। এছাড়া ঈদের কিছু প্রি-প্রোডাকশন এর কাজ করছি।

জাগো নিউজ: ঈদে কী স্পেশাল কিছু থাকছে?
জাহিদ হাসান: প্রতিনিয়তিই চেষ্টা করি স্পেশাল কিছু করতে। আসছে ঈদে কয়েকটি প্রোডাকশন করার পরিকল্পনা আছে। তার মধ্যে ৫-৬টি ৭ পর্বের ধারাবাহিক নাটক এবং ১-২টি একক নাটক আছে। কয়েকটিতে অভিনয় করবো, কিছু হবে পরিচালনাও। মজার গল্প ও ইমোশন-এর প্রতি গুরুত্ব থাকবে বেশি।

জাগো নিউজ: চলচ্চিত্র নির্মাণের কোনো পরিকল্পনা আছে কী?
জাহিদ হাসান: চলচ্চিত্র নির্মাণের পরিকল্পনা করেছি। যদি ভালো গল্প পাই, তাহলে প্রস্তুতি শুরু করে মাঠে নামবো। ঘটনা হলো সিনেমা তো এখন হলে গিয়ে দেখছে না দর্শক। নানা কারণেই এটা হচ্ছে না। সেই দর্শককে হলে ফেরাতে প্রথমে প্রয়োজন ভালো গল্প। তার সাথে ভালো নির্মাণ। আপাতত বলা যায় গল্প খুঁজছি।

এলএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]