স্বামীর ভালো রোজগারই সফল দাম্পত্যের চাবিকাঠি!

লাইফস্টাইল ডেস্ক
লাইফস্টাইল ডেস্ক লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৫৫ এএম, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১

সব অভিভাবকেরাই চান যেন তাদের কন্যার ভালো ও সম্ভ্রান্ত পরিবারের ছেলের সঙ্গে বিয়ে হয়। এতে বৈবাহিক জীবন সুখের হয়। কারণ যে সংসারে অর্থাভাব থাকে ও স্বামী বেকার হন, সেখানে দৈনিক হাজারও সমস্যা লেগে থাকে।

যদিও অনেকেরই অভিযোগ আছে, অর্থ কখনো সুখ আনতে পারে না। আবার এটিও সত্যি যে, অভাব যখন দরজায় এসে দাঁড়ায়, ভালোবাসা তখন জানালা দিয়ে পালায়।

মার্কিন বিশেষজ্ঞরাও এ বিষয়ে একমত। তাদের মতে, স্বামীর মোটা মাইনেই নাকি সফল বৈবাহিক জীবনের চাবিকাঠি! প্রায় ৬ হাজার ৩০০ জনের উপরে সমীক্ষা চালানোর পরে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা এ বিষয়ে একমত হয়েছেন।

স্বামী যদি অনেক টাকার মালিক হন, তাহলে বৈবাবিক জীবনে নানা সমস্যা দানা বাঁধার আশঙ্কা যে কিছুটা হলেও কমে, তাতে কোনো সন্দেহ নেই বিশেষজ্ঞদের। সমস্যা হয় সেখানেই, যেখানে বরের কোনো চাকরি নেই অথবা চাকরির হাল বেহাল। প্রতি মাসের রোজগার কম হলেও নাকি সমস্যার শেষ থাকে না, এমনই দাবি বিশেষজ্ঞদের।

তবে কেন এমন ঘটনা ঘটে? বর্তমান সময়ের সব সম্পর্কই চাহিদা-যোগানের ভারসাম্যের উপর দাঁড়িয়ে আছে। যদিও এখন নারীরাও পুরুষের সঙ্গে সমানতালে কর্মক্ষেত্রে বিচরণ করছেন, তবুও অনেক নারী আজও আর্থিকভাবে স্বাধীন নন। তাই বৈবাহিক জীবনের স্থায়িত্বের ক্ষেত্রে স্বামীর রোজগার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

গবেষণায় আরও উঠে এসেছে, দু’জনের মধ্যে একজন যদি ভালো মানের চাকরি করেন, তাহলেও অশান্তি হয়। কারণ যদি কোনো স্ত্রী তার স্বামীর চেয়ে বেশি টাকা রোজগার করেন, তাহলে স্বামী নিজেকে ছোট মনে করেন। এমনকি পারিপার্শ্বিক মানুষের ননা কথাও শুনতে হয় ওই স্বামকে। সব মিলিয়ে স্বামী-স্ত্রীয়ের মধ্যে ঝগড়া-অশান্তি মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে।

উথাহ স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের করা আরও একটি স্টাডি অনুসারে, অধিকাংশ নারীই নাকি মোটা টাকা রোপজগার করা ছেলেদের সঙ্গে ডেটে যেতে একটু বেশিই স্বাচ্ছন্দবোধ করেন। আসলে আর্থিক নিরাপত্তার বিষয়টি সম্পর্কের ক্ষেত্রে অনেক গুরুতবপূর্ণ।

আর সে বিষয়ে নিশ্চিত হয়েই সম্পর্ক গড়তে চান অনেকেই। তাই বলে যে প্রেম বা ভালোবাসার মূল্য নেই, তা কিন্তু নয়। বাল্যপ্রেম কিংবা কলেজে প্রেম, এসব বিষয়ের অস্তিত্ব হয়তো আজও আছে, তবে ধীরে-ধীরে মানুষ বাস্তবধর্মী হতে চাইছে, এটিও সত্য।

আসলে বৈবাহিক সম্পর্ক বাঁচিয়ে রাখতে ভালবাসাই শেষ কথা হওয়া উচিত। তবে ভালোবাসার পাশাপাশি সংসার সুখের করতে অর্থও কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়। তাহলে কি সঙ্গীর অনেক মোটা টাকার রোজগার না থাকলে সম্পর্ক টিকবে না?

অবশ্যই টিকবেন, তবে সবটাই নির্ভর করছে চাহিদার উপর। এমনও অনেক দম্পতি আছেন, যারা দুজনেই অল্পতেই তুষ্ট। স্বামী কতটা রোজগার করছেন তা স্ত্রীকে ভাবায় না।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

জেএমএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]