হার্দিক-রাহুলের কাণ্ডে টালমাটাল ভারতীয় ক্রিকেট

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:৩৯ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০১৯

কফি উইথ করণ, ভারতের জনপ্রিয় এই টক শোতে অনেকেই নিজেদের জীবনের খোলামেলা অনেক কথা বলে বসেন। কিন্তু জাতীয় দলের ক্রিকেটার হয়ে যে সব জায়গায় সব কথা বলা যায় না, সেটা বোধ হয় মাথায় ছিল না হার্দিক পান্ডিয়া আর লোকেশ রাহুলের। যার দায় চুকাতে গিয়ে ক্যারিয়ারটাই হুমকির মুখে পড়ে গিয়েছে এই দুই ক্রিকেটারের।

ভারতের জনপ্রিয় চলচ্চিত্র নির্মাতা করণ জোহরের ওই অনুষ্ঠানে অতিথি হয়ে গিয়েছিলেন লোকেশ রাহুল আর হার্দিক পান্ডিয়া। সেখানেই খোলাখুলি মত প্রকাশ করতে গিয়ে নারীঘটিত অনেক ব্যাপার ও 'সেক্সিজম' নিয়ে কথা বলেন তারা। ওই অনুষ্ঠানটি প্রচারের পর ভারতীয় এই দুই ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে নারীদের অবমাননার অভিযোগ উঠেছে, যা নিয়ে রীতিমত ঝড় উঠেছে দেশটির ক্রিকেটে।

এই ঘটনার জের ধরে অনির্দিষ্টকালের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে হার্দিক আর রাহুলকে। অস্ট্রেলিয়ায় ভারতের ওয়ানডে সিরিজ চলছে। সেখানে ০-১ পিছিয়ে থাকা অবস্থায় বিরাট কোহালিরা দ্বিতীয় এক দিনের ম্যাচ খেলতে নেমেছে আজ। হার্দিক ও রাহুলকে এরই মধ্যে দেশের বিমানে তুলে দেওয়া হয়েছে।

প্রথমে এই দুই ক্রিকেটারকে শোকজ করেছিল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। শোকজের জবাবে নিজেদের ভুল স্বীকার করে নিঃশর্ত ক্ষমা চান তারা। কিন্তু তাতে মন গলেনি বিসিসিআইয়ের। তারা মনে করছে, শোকজের জবাব সন্তোষজনক হয়নি। নারীবিদ্বেষী আচরণে তাই হার্দিক-রাহুলকে নিষিদ্ধ করার পক্ষেই মত দিয়েছেন বোর্ড কর্তারা।

এর মধ্যে গুরুতর প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, ভারতীয় বোর্ড আভ্যন্তরীণ রাজনীতির জেরে স্বৈরাচারী ভঙ্গিতে দুই ক্রিকেটারকে অপরাধী সাজিয়ে ইতিমধ্যেই কাঠগড়ায় তুলে দিয়েছে কি না। কেননা টক শোতে রাহুল খুব আপত্তিজনক কোনও মন্তব্য করেছেন বলে প্রমাণ নেই। হার্দিক করেছেন। কিন্তু তাদের দু’জনকে একই রকম শাস্তি দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া তাদের মন্তব্যের সঙ্গে ক্রিকেটের কোনও সম্পর্ক নেই বলে এখানে বোর্ডের কোড অফ কন্ডাক্ট বলবৎযোগ্য কিনা, সেই প্রশ্নও উঠছে।

হার্দিক-রাহুলদের এই শাস্তি নিয়ে দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। নিজেদের মধ্যেই ঝামেলা করতে ব্যস্ত কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্স বা সিওএ-র দুই সদস্য বিনোদ রাই ও ডায়ানা এডুলজি। হার্দিক-রাহুল কাণ্ডের দ্রুত নিষ্পত্তি চান কমিটির চেয়ারম্যান বিনোদ রাই। কিন্তু অন্য সদস্য ডায়না এডুলজির অবস্থান একেবারে উল্টো মেরুতে।

সব মিলিয়ে এই দুই ক্রিকেটারকে নিয়ে রীতিমত টালমাটাল অবস্থায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। একটার বিচার করতে গিয়ে আবার অন্য ঝামেলা তৈরি হয় কিনা, সেই শঙ্কাও দেখা দিয়েছে।

এমএমআর/এমকেএইচ