পাকিস্তান সিরিজে ব্যাটিং অর্ডার কি হবে, বললেন ডোমিঙ্গো

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:১১ পিএম, ১৯ জানুয়ারি ২০২০

সাকিব আল হাসান-মুশফিকুর রহীম ছাড়া বাংলাদেশ। চিরায়ত ধারা অনুসরণ করে আর সনাতন পথে হেঁটে সেই দুই শীর্ষ তারকার অভাববোধ তথা ঘাটতি পূরণ সম্ভব নয়। তাই ভিন্ন পথে হাঁটা ছাড়া আসলে উপায় নেই।

আভাস মিলেছিল আগেই, পাকিস্তানের সাথে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে বাংলাদেশের ব্যাটিং অর্ডারে খানিক রদবদল ঘটতে পারে। ওপেনিং জুটিটা হয়ত ঠিক থাকবে। আবার দলে ফেরা এক নম্বর ওপেনার তামিম ইকবালের সাথে লিটন দাসের কম্বিনেশনটাই হয়ত বহাল থাকবে।

তবে তিন নম্বরে আসতে পারে পরিবর্তন। নতুন কাউকে খেলানো হতে পারে ওয়ান ডাউনে। এমন গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিলো। যেহেতু সাকিব আর মুশফিক নেই, তাই তিন ও চার নম্বর পজিসনটা একটু মজবুত করার দরকারও আছে। সেই অনুভব ও উপলব্ধি থেকেই হয়ত বেশ কিছু দিন পর বাংলাদেশের ব্যাটিং অর্ডারে একটা অভিনব রদবদলের সম্ভাবনা আছে।

সে রদবদলের চিন্তা জন্ম নিয়েছে আসলে এবারের বিপিএলের পর থেকে। বলার অপেক্ষা রাখে না বিপিএলে স্ট্রাইকরেট তার মানে ও তার অতীত পরিসংখ্যানের তুলনায় কম থাকলেও তামিম মোটামুটি ভাল খেলেছেন। লিটন দাসের ব্যাট থেকেও রান এসেছে নিয়মিত। তার সাথে বেশ ভাল খেলেছেন আফিফ হোসেন ধ্রুবও। লিটনের সাথে জুটি বেঁধে রাজশাহী রয়্যালসের হয়ে বেশ কিছু ভাল ইনিংস উপহার দিয়েছে আফিফ।

তাই তামিম ও লিটন দাসকে ওপেনারে ভূমিকায় রেখে কোচ চান আফিফকে তিন নম্বরে খেলাতে। আর ভারতের সাথে তিন নম্বরে খেলা সৌম্য সরকারকে নীচে নামিয়ে ছয় নম্বরে খেলানোর চিন্তা বাংলাদেশ কোচের মাথায়।

আজ পড়ন্ত বিকেলে শেরে বাংলায় উপস্থিত সাংবাদিকদের সাথে আলাপে রাসেল ডোমিঙ্গো বলেন, ‘ভারতের সাথে সৌম্য সরকার খেলেছিল ওয়ানডাউনে। পাকিস্তানের সাথে তাকে আরও নীচে নামিয়ে সম্ভবত ছয় নম্বরে খেলানো হতে পারে। আর আফিফকে তুলে এনে তিন কিংবা চার নম্বর পজিসনে ব্যাটিংয়ে পাঠানোর কথা ভাবা হচ্ছে। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ হয়ত পাঁচে খেলবে। একইভাবে নাজমুল হোসেন শান্তও নিজেকে মেলে ধরেছে।’

এআরবি/আইএইচএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]