‘আইপিএল ইতিহাসে কাউকে এমন ব্যাটিং করতে দেখিনি’

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:১৭ এএম, ২৮ মে ২০২২

আইপিএলের এবারের আসরে উড়ন্ত ফর্মে রয়েছেন রাজস্থান রয়্যালসের ইংলিশ ওপেনার জস বাটলার। ফাইনালের আগপর্যন্ত ১৬ ম্যাচে ১৫১ স্ট্রাইকরেট ও ৫৯ গড়ে ৮২৪ রান করে ফেলেছেন তিনি। এক আসরে সর্বোচ্চ চার সেঞ্চুরির সঙ্গে হাঁকিয়েছেন চারটি ফিফটিও।

শুক্রবার তার সেঞ্চুরিতে ভর করেই দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুকে হারিয়েছে ২০০৮ সালের পর প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠেছে রাজস্থান। অথচ আসর শুরুর আগে তেমন কোনো প্রত্যাশাই ছিল না বাটলারের।

ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে ৬০ বলে ১০৬ রানের অপরাজিত ইনিংসে ম্যাচসেরার পুরস্কার জেতার পর বাটলার বলেছেন, ‘এই মৌসুমে আমার আশা তেমন বেশি ছিল না। তবে আমি খুবই রোমাঞ্চিত ছিলাম। এখন পর্যন্ত যা হয়েছে, দল হিসেবে শিরোপার কাছে পৌঁছানো সত্যিই আনন্দের।’

সবমিলিয়ে ৮২৪ রান করে বর্তমানে শীর্ষে থাকলেও মাঝে বাটলার খানিক বিবর্ণ ছিলেন। প্রায় তিন সপ্তাহ ফিফটি আসেনি ব্যাটে। তবে গুজরাট টাইটান্সের বিপক্ষে প্রথম কোয়ালিফায়ারে ৮৯ রানের ইনিংস খেলেই ছন্দে ফেরেন তিনি। সেই ধারাবাহিতা ধরে রেখেছেন দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারেও।

বাটলারের এমন ব্যাটিংয়ে বিমোহিত কিংবদন্তি ব্যাটার কুমার সাঙ্গাকারা। যিনি বর্তমানে রাজস্থানের ক্রিকেট পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সাঙ্গাকারার মতে, আইপিএল ইতিহাসেই এর আগে কেউ বাটলারের মতো এমন ব্যাটিং করেনি।

বাটলারের ব্যাপারে সাঙ্গাকারা বলেছেন, ‘আমার মনে পড়ে না আইপিএল ইতিহাসে কেউ এমন ব্যাটিং করেছে কি না। আমি মনে করি তার পুরো খেলাটাই শক্তির জায়গা। নিজের ছন্দে উপনীত হলে বাটলারকে আর থামানোর কোনো পথ নেই। যেকোনো সময় রানের গতি বাড়িয়ে ফেলতে পারে সে।’

এসএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]