তিনটি রেকর্ড গড়েও অল্পের জন্য পদকবঞ্চিত স্মৃতি

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:৩৬ পিএম, ১২ আগস্ট ২০২২

দক্ষিণ এশিয়ার বাইরের কোনো গেমস বা প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে গেলেই বাংলাদেশের ক্রীড়াবিদদের লক্ষ্র থাকে নিজের সেরা পারফরম্যান্স করা।

ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে অনুষ্ঠিত কমনওয়েলথ গেমস এবং তুরস্কের কোনিয়ায় চলতি ইসলামী সলিডারিটি গেমসে বাংলাদেশের পদকের দেখা না মিললেও বেশ কয়েকজন ক্রীড়াবিদ ব্যক্তিগত সেরা পারফরম্যান্স করতে পেরেছেন। এমনকি জাতীয় রেকর্ডও গড়েছেন সেখানে।

সেই ধারাবাহিকতায় নারী ভারোত্তোলক স্মৃতি আক্তার ইসলামী সলিডারটি গেমসে ৫৫ কেজি ওজন শ্রেণিতে তিনটি জাতীয় রেকর্ড গড়েও অল্পের জন্য বঞ্চিত হয়েছেন ব্রোঞ্জ পদক থেকে। শুক্রবার কোনিয়ায় বাংলাদেশের এই নারী ভারোত্তোলক ১৫৬ কেজি ওজন তুলে চতুর্থ হয়েছেন।

তিনি স্ন্যাচে তুলেছেন ৭০ কেজি। এর আগে জাতীয় রেকর্ড ছিল ৬৮ কেজির। ক্লিন অ্যান্ড জার্কে তিনি তুলেছেন ৮৬ কেজি, আগে ছিল ৮৪ কেজি। টোটাল আগের রেকর্ড ছিল ১৫২ কেজি, স্মৃতি কোনিয়ায় তুলেছেন ১৫৬ কেজি। ঘরোয়া রেকর্ডের চেয়ে চার কেজি বেশি ওজন তুলেও অল্পের জন্য পদকবঞ্চিত হয়েছেন তিনি।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর এই ভারোত্তোলককে দেশে অনুশীলন করিয়েছেন কোচ শাহরিয়ার সুলতানা সূচি। তিনি কোনিয়া থেকে জাগো নিউজকে জানিয়েছেন, ‘স্ন্যাচে আর দুই কেজি ওজন তুলতে পারলেই স্মৃতি ব্রোঞ্জ জিতে যেতেন। তার চেয়ে এক কেজি বেশি ওজন তুলে ব্রোঞ্জ জিতেছেন ইরানের ভারোত্তোলক।’

এই ইভেন্টে স্বর্ণ জিতেছে ইন্দোনেশিয়া ও রৌপ্য জিতেছে তুর্কমেনিস্তানের ভারোত্তোলক। ইসলামী সলিডারিটি গেমসে বাংলাদেশ থেকে অংশ নিচ্ছেন ২ জন ভারোত্তোলক। আরেকজন সোহায়বা রহমান সাবা। তার ইভেন্ট ১৫ আগস্ট।

আরআই/এমএমআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।