অনশন ভাঙলেও আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা শিক্ষার্থীদের

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক শাবিপ্রবি
প্রকাশিত: ০৩:৫০ পিএম, ২৬ জানুয়ারি ২০২২

অনশন ভাঙলেও উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) শিক্ষার্থীরা।

বুধবার (২৬ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টায় ভিসির বাসভবনের সামনে সংবাদ সম্মেলনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থী জাহিদুল ইসলাম অপূর্ব এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘ড. জাফর ইকবাল স্যার আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন তাই অনশন ভেঙেছি, কারণ উনাদের আমরা বিশ্বাস করি। তবে আমাদের আন্দোলন চলমান থাকবে যতক্ষণ এ ভিসি পদত্যাগ না করবেন।’

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় সস্ত্রীক ক্যাম্পাসে এসে পানি খাইয়ে শিক্ষার্থীদের দীর্ঘ সাতদিনের অনশন ভাঙেন অধ্যাপক ড. জাফর ইকবাল।

jagonews24

এসময় ড. জাফর ইকবাল বলেন, ‘আমি এখানে আসতে চাইছিলাম না। কারণ তোমরা আমর কথা না শুনলে তাই! তবে আমার ছেলে-মেয়েদের ওপর আমার বিশ্বাস ছিল, তাই এসেছি। আমি সংকল্প করে এসেছি তোমাদের অনশন ভাঙিয়ে তারপর আমি সিলেট ছাড়বো। আমি চাই তোমরা আন্দোলন চালিয়ে যাও, তবে অনশন ভেঙে আন্দোলন করো। আন্দোলন আর অনশন ভিন্ন জিনিস! আমি এসেছি তোমাদের অনশন ভাঙাতে। পরে সবাই পানি খেয়ে ড. জাফর ইকবালের হাতে অনশন ভাঙেন।’

গত ১৩ জানুয়ারি থেকে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলের প্রভোস্ট কমিটির পদত্যাগসহ তিন দফা দাবিতে আন্দোলনে নামেন শিক্ষার্থীরা। পরে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিও সামনে আসে।

এরপর ১৬ জানুয়ারি বিকেলে তিন দফা দাবি আদায়ে উপাচার্যকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইআইসিটি ভবনে অবরুদ্ধ করেন শিক্ষার্থীরা। পরে পুলিশ উপাচার্যকে উদ্ধার করতে গেলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওই সময় পুলিশ সাউন্ড গ্রেনেড, টিয়ারসেল ও রাবার বুলেট ছুড়ে শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হন। পুলিশ ৩০০ জনকে অজ্ঞাত দেখিয়ে শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে মামলা করে।

১৯ জানুয়ারি বিকেলে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে তার বাসভবনের সামনে আমরণ অনশন শুরু করেন ২৩ জন শিক্ষার্থী। একে একে শিক্ষার্থীরা অনশনে যোগ দেন। পরে ২৬ জানুয়ারি সকালে শিক্ষার্থীরা অনশন ভাঙলেও আন্দোলন চালিয়ে যাবার ঘোষণা দেন।

আরএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]