পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্ত্রীর আত্মহত্যা, স্বামী আটক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি যশোর
প্রকাশিত: ১২:৪২ এএম, ২৪ জুলাই ২০১৯

যশোরের মণিরামপুরে স্বামীর পরকীয়ায় বাঁধা দেয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিমানে দুই সন্তানের জননী হীরামন (৩০) আত্মহত্যা করেছে। স্ত্রীকে আত্মহত্যার প্ররোচণার অভিযোগে স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার উপজেলার মনোহরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ রাত ৯টার দিকে লাশ উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। মৃত হীরামন খাতুন উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের মনিরুল ইসলামের স্ত্রী ও মনোহরনগর গ্রামের মশিয়ার রহমানের মেয়ে।

হীরামনের পিতা মনোহরনগর গ্রামের মশিয়ার রহমান জানান, ১৩ বছর আগে তার মেয়ের সাথে পার্শ্ববর্তী মনোহরপুর গ্রামের নিছার ধাবড়ের ছেলে মনিরুল ইসলামের বিয়ে হয়। তাদের ১১ বছরের হাসিবুর রহমান নামে এক ছেলে ও আছিয়া খাতুন নামে দেড় বছরের মেয়ে রয়েছে। সম্প্রতি একই গ্রামের স্বামী পরিত্যক্ত এক নারীর সাথে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে উঠে মনিরুলের।

এ কথা জানতে পেরে স্বামীর পরকীয়া বাঁধা দেয় হীরামন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে হীরামনকে শারীরিক নির্যাতন করে আসছিল। ঘটনার দিন এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মারপিট করে বলে অভিযোগ। অভিমানে হীরামন আত্মহত্যা করেছে বলে তিনি দাবি করেন।

মণিরামপুর থানার ওসি (সার্বিক) রফিকুল ইসলাম জানান, আত্মহত্যার প্ররোচণার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ নিহত হীরামনের স্বামী মনিরুলকেকে আটক করেছে।

মিলন রহমান/এমআরএম

আপনার মতামত লিখুন :