গ্রাম পুলিশের বাড়িতে মদের কারখানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ০৩:০৯ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০১৯

বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার আমরুল ইউনিয়নের ডেমাজানী হিন্দুপাড়ায় স্বপন রবিদাস (৪৫) নামে এক গ্রাম পুলিশের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বাংলা মদের কারখানার সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। এ সময় মদ তৈরির সরঞ্জামসহ গ্রাম পুলিশ স্বপন রবিদাস ও তার স্ত্রী লক্ষ্মী রানীকে (৩৮) আটক করে পুলিশ। পরে থানায় নিয়ে যাওয়ার পর গ্রাম পুলিশ স্বপন রবিদাসকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। শুক্রবার গভীর রাতে এ অভিযান চালানো হয়।

এদিকে এ ঘটনার প্রতিবাদে ও অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে শনিবার দুপুরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ডেমাজানী হিন্দুপাড়ার লোকজন।

ডেমাজানী হিন্দুপাড়ার বাসিন্দা অমল কুমার, নৃত্যনন্দ দাস, বিরেন পাল, কালীপদ পাল, ভজন পাল জানান, গ্রাম পুলিশ স্বপন রবিদাস ও তার স্ত্রী লক্ষ্মী রানী দীর্ঘদিন ধরে বাংলা মদ তৈরি করে ব্যবসা করে আসছে। এতে গ্রামের যুব সমাজ নষ্ট হয়ে পড়েছে।

তারা আরও জানান শুক্রবার গভীর রাতে শাজাহানপুর থানার এসআই সোহেল সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে মদ তৈরির সরঞ্জামসহ স্বপন রবিদাস ও তার স্ত্রীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। কিন্তু ওইদিন রাতেই টাকার বিনিময়ে স্বপন রবিদাসকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। অপরাধীদের আইনের আওতায় না নিয়ে এভাবে ছেড়ে দেয়া হলে সমাজে অপরাধ প্রবণতা বেড়ে যাবে। তাই অপরাধীদের উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিত করতেই এই প্রতিবাদ জানিয়েছেন তারা।

শাজাহানপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিম উদ্দিন জানান, গ্রাম পুলিশ স্বপন রবিদাস এ ঘটনায় জড়িত নয়। তার স্ত্রী লক্ষ্মী রানী মদ তৈরি করতো বলে জানতে পেরেছি। খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে লক্ষ্মী রানীকে হাতেনাতে আটক করা হয়। যার কারণে স্বপনকে থানায় আনার পর ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়েছে।

লিমন বাসার/আরএআর/এমএস